advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বাংলাদেশ চালের আমদানি শুল্ক কমাতেই ভারতে বাড়ল দাম

আমাদের সময় ডেস্ক
২৮ জুন ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৭ জুন ২০২২ ১১:৫৮ পিএম
advertisement

বাংলাদেশ আমদানি শুল্ক ৬২.৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ২৫ শতাংশ করার পর গত পাঁচ দিনে ভারতের চালের দাম দেশি এবং আন্তর্জাতিক বাজারে প্রায় ১০ শতাংশ বেড়েছে। এর ফলে ভারতীয় ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশের সঙ্গে রপ্তানি চুক্তির তৎপরতা বৃদ্ধি করেছে। গতকাল সোমবার ইকোনমিক টাইমসের এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

advertisement 3

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ২২ জুন বাংলাদেশ এক বিবৃতির মাধ্যমে জানায়, ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত বাসমতী চাল ছাড়া অন্য কোনো চাল আমদানি করা যাবে না। ভারত চাল রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করতে পারে এই আশঙ্কায় এই প্রথমবার বাংলাদেশ এত তাড়াতাড়ি ভারত থেকে চাল আমদানি করছে। সাধারণত ভারত থেকে বাংলাদেশের চাল আমদানির সময় সেপ্টেম্বর-অক্টোবর। কয়েক মাস ধরে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ এবং ভারতের গম রপ্তানি নিষিদ্ধর পর বাংলাদেশে প্রধান এই খাবারের ঘাটতি দেখা দিয়েছে। পাশাপাশি গম আমদানিও কমে গেছে

advertisement 4

বাংলাদেশের। এ ছাড়া চলতি বছর বন্যার কারণে দেশে ধান চাষও ব্যাহত হয়েছে।

ভারত থেকে বাংলাদেশে চাল রপ্তানি সংগঠনের সভাপতি বিভি কৃষ্ণ রাও বলেন, গত পাঁচ দিনে বিশ্ববাজারে ভারতীয় অ-বাসমতি চালের মূল্য প্রতি টন ৩৫০ ডলার থেকে বেড়ে ৩৬০ ডলারে পৌঁছেছে। আর এটা ঘটেছে বাংলাদেশ থেকে শুল্ক কমানোর খবর আসার পর। ক্রমবর্ধমান গমের দাম এবং আমদানি হ্রাস বাংলাদেশে আটার দাম বাড়িয়েছে এবং চালের উপর চাপ সৃষ্টি করেছে। এ ছাড়া আগাম বন্যা, ঝড় এবং ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে বাংলাদেশে ধানচাষ ব্যাহত হয়েছে। যে কারণে চালের দাম আরও বৃদ্ধি পেতে পারে বলে আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

ভারতে চালের দাম আরও বাড়বে উল্লেখ করে দেশটির তিরুপতি এগ্রি ট্রেডের মুখ্য এক্সিকিউটিভ অফিসার সুরজ আগরওয়াল বলেন, চালের দাম ইতোমধ্যে ১০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে এবং সেটা আরও বাড়বে। বাংলাদেশ সাধারণত পশ্চিমবঙ্গ, উত্তরপ্রদেশ ও বিহার থেকে চাল কেনে। ভারতের এই তিন রাজ্যে সাধারণ চালের দাম ইতিমধ্যে ২০ শতাংশের বেশি বেড়েছে। এই তিন রাজ্যে চালের দাম বৃদ্ধি দেশের অন্যান্য অঞ্চলেও প্রভাব ফেলেছে। ফলে ভারতের দেশি এবং আন্তর্জাতিক বাজারে চালের দাম ১০ শতাংশ বেড়েছে।

প্রতিবেদনে আরও জানানো হয়েছে, চলতি অর্থবছরে বাংলাদেশ ভারত থেকে ১৩.৫৯ লাখ টন চাল আমদানি করেছে। বাসমতি নয় এমন চাল বাংলাদেশ আগাম ক্রয় করায় ভারতীয় চাল রপ্তানি বৃদ্ধি পাবে। ভারতের ডিরেক্টরেট জেনারেল অব কমার্শিয়াল ইনটেলিজেন্স অ্যান্ড পরিসংখ্যানের তথ্য অনুযায়ী ২০২০-২১ অর্থবছরে বাংলাদেশে ৬.১১ বিলিয়ন ডলারের অ-বাসমতি চাল রপ্তানি করেছে ভারত। আর আগের অর্থবছরে ভারতের এই চাল রপ্তানির পরিমাণ ছিল ৪.?৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের।

advertisement