advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

লিফট আমদানির শুল্ক কমানোর দাবি ব্যবসায়ীদের

চট্টগ্রাম ব্যুরো
২৮ জুন ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৮ জুন ২০২২ ১২:১৪ এএম
advertisement

বাজেটে বিদেশ থেকে লিফট আমদানি করতে হলে ব্যবসায়ীদের দিতে হবে অতিরিক্ত ৩১ শতাংশ আমদানি শুল্ক। এই শুল্ক যুক্ত হলে লিফটের দাম আরও বাড়বে। এ ছাড়া শুল্ক আরোপের ফলে শতাধিক কোম্পানি দেউলিয়া হবে। তাই অতিরিক্ত এই শুল্ক প্রত্যাহার করার দাবি জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। গতকাল সোমবার সকালে নগরীর জামালখানে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে বাংলাদেশ এলিভেটর এসকেলেটর অ্যান্ড লিফট ইম্পোটার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বেলিয়া) সদস্যরা।

advertisement 3

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রীর শহরভিত্তিক উন্নয়নের পাশাপাশি গ্রাম হবে শহর সেøাগান কেন্দ্র

advertisement 4

করে দেশজুড়ে উন্নয়নের যে জোয়ার তৈরি হয়েছে তা বাস্তবায়ন করতে গেলে বিল্ডিংয়ে ওঠানামায় লিফটের বিকল্প কোনো প্রযুক্তি নেই। তাই প্রধানমন্ত্রীর সেøাগান বাস্তবায়ন করতে গেলে ভোক্তাপর্যায়ে দাম সহনীয় রাখার জন্য আমদানিকৃত লিফটের ওপর অতিরিক্ত যে কর আরোপ হতে যাচ্ছে তা বন্ধ করতে হবে। দেশের আবাসন খাতের উন্নয়নে লিফট একটি প্রধান উপকরণ। ২০২২-২৩ অর্থবছরে প্রস্তাবিত বাজেটে লিফটের ওপর ৩১ শতাংশ আমদানি শুল্ক আরোপ করা হয়েছে। এতে দেশে এই পণ্যের দাম বাড়বে। ভোক্তারা ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। শুল্ক আরোপের ফলে শতাধিক কোম্পানি দেউলিয়া হয়ে যাবে।

করোনা মহমারীর কথা উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, বিগত দিনে কোভিড মহামারীর কারণে বিশ্বজুড়ে সরবরাহ সংকট তৈরি হওয়ায় আমদানিকারকরা ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। বৈদেশিক মুদ্রার বিনিময় মূল্য ওঠা-নামার কারণে প্রতিটি লিফটের ওপর ১৮ থেকে ২০ শতাংশ অতিরিক্ত মূল্য বৃদ্ধি হচ্ছে। ইতোমধ্য প্রতিটি লিফটের দাম ৫০ শতাংশের বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে। এখন অতিরিক্ত শুল্ক আরোপ হলে তা মানুষের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে চলে যাবে এবং সরকারের ঘোষিত উন্নয়নে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হবে। তাই সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় প্রস্তাবিত অতিরিক্ত আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার করে লিফটকে মূলধনী যন্ত্রাংশে পুনর্বহাল রাখার জন্য জনবান্ধব সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগ, মন্ত্রণালয় এবং প্রধানমন্ত্রীর বরাবর আকুল আবেদন জানাচ্ছি ।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন ইউনাটেড এক্সপারটেস বিডি লিফটের সিইও পুজন সেন গুপ্ত, পিকো প্লাসের পরিচালক এনায়েতুর রহমান, ও টু-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম উদ্দিন, এক্সেল এলিভেটর অ্যান্ড পাওয়ার জেনারেশনের সিইও প্রকৌশলী ইসমাইল হোসেন, গ্লোবাল ইঞ্জিরিয়ারিং কোম্পানি লি.-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রণব নন্দী, প্যারাগন টেকের খালেদ রায়হান, পারফেক্ট লিফট লি.-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. হাসনাত মীর বাহার, ডিজিটেল পাওয়ার সিটি লি.-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মো. আবুল মহসীন, স্কেল লি.-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক রুহুল আমিন প্রমুখ।

advertisement