advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

জর্ডানে বিষাক্ত গ্যাস ছড়িয়ে ১৩ জনের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক
২৮ জুন ২০২২ ০৯:৫০ এএম | আপডেট: ২৮ জুন ২০২২ ০১:১৮ পিএম
জর্ডানে কন্টেইনার বিস্ফোরণে ছড়িয়ে পড়ে বিষাক্ত ক্লোরিন গ্যাস
advertisement

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ জর্ডানের লোহিত সাগর তীরবর্তী আকাবা বন্দরে বিষাক্ত ক্লোরিন গ্যাস লিক হয়ে ছড়িয়ে পড়ায় ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। অসুস্থ হয়ে পড়েছেন আড়াই শতাধিক মানুষ। দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে মঙ্গলবার আল-জাজিরা এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে।

অবশ্য বিষাক্ত ক্লোরিন গ্যাস লিকের এ ঘটনায় প্রাণহানির সংখ্যা ১১ বলে জানিয়েছে বিবিসি। জর্ডানের কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ক্রেনের ত্রুটির কারণে একটি রাসায়নিক স্টোরেজ কন্টেইনার নিচে পড়ে গেলে বিষাক্ত রাসায়নিক ছড়িয়ে পড়ে। 

advertisement

এদিকে, দুর্ঘটনার একটি সিসিটিভি ফুটেজ সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্লাটফর্মে ছড়িয়ে পড়েছে। ভাইরাল ওই সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে, ক্লোরিন গ্যাসভর্তি ওই কন্টেইনারটি ক্রেনের মাধ্যমে ওপরের দিকে ওঠানো হচ্ছে এবং তারপর হঠাৎ করে এটি জাহাজের ওপরে পড়ে এবং বিস্ফোরিত হয়।

এর পরপরই উজ্জ্বল হলুদ এই গ্যাসের বিপুল অংশ সেখানে ছড়িয়ে পড়তে দেখা যায় এবং এর ফলে ঘটনাস্থলে থাকা মানুষকে নিরাপত্তার জন্য দৌড়াতে দেখা যায়।

জর্ডানের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, অসুস্থ হয়ে পড়া ১৯৯ জনকে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তাদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।

বিবিসি বলছে, ক্লোরিন হলো এমন একটি রাসায়নিক, যা শিল্প-কারখানা এবং গৃহস্থালি পরিষ্কারের পণ্যগুলোতে ব্যবহৃত হয়। স্বাভাবিক তাপমাত্রা এবং চাপে এটি মূলত হলুদ-সবুজ একটি গ্যাস, তবে সংরক্ষণ ও অন্যস্থানে পরিবহনের জন্য এটিকে চাপ দিয়ে ঠান্ডা করা হয়।

জর্ডানের প্রধানমন্ত্রী বিশার আল-খাসাওনেহ এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মাজেন ফারায়াকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এ ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দেন।

আকাবার বন্দরের ডেপুটি ডিরেক্টর জানিয়েছেন, জাহাজে ওঠানোর সময় কন্টেইনারটিকে বহনকারী একটি ‘লোহার দড়ি’ ছিড়ে যায় এবং এতে করে এটি নিচে পড়ে যায়।

বিবিসি বলছে, কন্টেইনারটিতে ২৫ থেকে ৩০ টন ক্লোরিন ভরা ছিল এবং জর্ডানের আকাবা বন্দর থেকে সেগুলো জিবুতিতে রপ্তানি করা হচ্ছিল।

advertisement