advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

রূপগঞ্জে কেমিক্যাল কারখানার গ্যাসে ৫ গ্রামে অসুস্থ ৫৪

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি
৮ আগস্ট ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ৮ আগস্ট ২০২২ ০১:১৬ এএম
advertisement

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে ওয়াটা কেমিক্যালের সালফার অ্যাসিডের গ্যাসে পাঁচ গ্রামের ৫৪ নারী-পুরুষ ও শিশু অসুস্থ হয়ে পড়েছে। অসুস্থদের মধ্যে কয়েকজনকে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, বেসরাকারি হাসপাতাল এবং প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। গতকাল রবিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। প্রায় এক যুগ ধরে এ কারখানার গ্যাসে এখানকার জনস্বাস্থ্য হুমকির মুখে। বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে পরিবেশ। এ ঘটনায় এলাকাবাসীর মাঝে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।

সরেজমিন ঘুরে জানা গেছে, রূপগঞ্জের মুড়াপাড়া ইউনিয়নের বানিয়াদি, বলাইনগর, ফরিদআলীরটেক, মঙ্গলখালী ও মকিমনগর

advertisement

এলাকা ঘেঁষে গড়ে উঠেছে ওয়াটা কেমিক্যাল কারখানা। জনবহুল এলাকায় কেমিক্যাল কারখানা করার বিধান না থাকলেও ওয়াটা কেমিক্যাল কারখানা পরিবেশ ছাড়পত্র নিয়ে কারখানা চালিয়ে যাচ্ছে। ফলে গত এক যুগ ধরে এসব এলাকার প্রায় ৯ হাজার মানুষ নীরব যাতনা সহ্য করে আসছে। কারখানার গ্যাসের কারণে গত এক যুগে কয়েক হাজার লোক অসুস্থ হয়েছে বলে দাবি করছেন এলাকাবাসী।

advertisement 4

মল্লিকা গেম নামে এক নারীর ভাষ্য- পাঁচ মাস আগে গ্যাসের কারণে তার এসএসসি পরীক্ষার্থী মেয়ে আমেনা বিনতে রিনা শ^াসকষ্টে আক্রান্ত হয়। দুদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর মারা যায়।

স্থানীয়দের ভাষ্য, গ্যাস ছাড়ার পর বুক জ্বালাপোড়া করে, মাথাব্যথা ও শ^াসকষ্ট হয়। গ্যাসের কারণে স্থানীয় এলাকাগুলোর গাছপালা জ্বলে যাচ্ছে। নষ্ট হয়ে যাচ্ছে বাড়িঘরের টিন। জামান মিয়া নামে একজন বলেন, তার আটটি আমগাছ ছিল। গ্যাসের কারণে সেগুলো মরে গেছে।

অভিযোগের ভিত্তিতে কারখানার মালিকপক্ষের লোক হিসাবে পরিচিত সালামদ্দিনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি এসব জানি না।

কারখানার ব্যবস্থাপনা পরিচালক নজরুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি কাজে ব্যস্ত আছেন বলে ফোন রেখে দেন।

নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উপপরিচালক তানহারুল ইসলাম বলেন, ওয়াটা কেমিক্যাল কর্তৃপক্ষ কয়েক মাস আগে কারখানা ফায়ার সেফটি প্ল্যানের জন্য আবেদন করেছে।

নারায়ণগঞ্জ পরিবেশ অধিদপ্তরের উপপরিচালক আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, এ কারখানার ছাড়পত্র আছে। যখন ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে, তখন আবাসিক এলাকা ছিল না। তবে গ্যাসের কারণে যদি লোকজন অসুস্থ হয় তা হলে দেখব। আজ সোমবার এলাকাটি পরিদর্শনের কথা রয়েছে তার।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ নুসরাত জাহান বলেন, ওয়াটা কেমিক্যালের গ্যাস নির্গমনের খবর পেয়েছি। খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর এমন কিছু করতে দেওয়া হবে না।

advertisement