advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

অক্টোবরে বিভাগীয় নেতাদের ডেকেছেন শেখ হাসিনা

মুহম্মদ আকবর
১২ আগস্ট ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ১২ আগস্ট ২০২২ ০৯:৪৮ এএম
advertisement

অক্টোবরে দলের ৮ বিভাগের নেতাদের নিয়ে গণভবনে বসবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কেন্দ্রীয় সম্মেলনের আগে দল গোছানো এবং আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতিসহ সার্বিক বিষয়ে নির্দেশনা দিতেই নেতাদের ডেকেছেন তিনি। পর্যায়ক্রমে ৮ বিভাগের সব জেলা-উপজেলার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকরাও এই সভায় যোগ দেওয়ার সুযোগ পাবেন বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, আগামী রবিবার সকাল সাড়ে ১০টায় দলের ৮ বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদকদের গণভবনে ডেকেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। বৈঠকে কয়টি উপজেলায় সম্মেলন হয়েছে, কয়টিতে হয়নি এসব বিষয়ের অগ্রগতি জানার পাশাপাশি তিনি দ্রুত সম্মেলনের কাজ শেষ করার নির্দেশনা দিতে পারেন বলে জানা গেছে।

advertisement 3

প্রায় ৪ বছর পর আবার জেলা, উপজেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ের নেতাদের নিয়ে বসছেন প্রধানমন্ত্রী। সবশেষ ২০১৮ সালের ২৩ জুন গণভবনে আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিতসভা হয়। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে অনুষ্ঠিত ওই বর্ধিতসভায় ৮ বিভাগ থেকে আসা জেলা নেতারা সারা দেশে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক অবস্থার পাশাপাশি ওই সময়ের বিতর্কিত দলীয় এমপিদের কর্মকাণ্ড তুলে ধরেন। এর আগের বছর ২০১৭ সালের ২০ মে জেলা নেতারা গণভবনে আরেক বর্ধিতসভায় তুলে ধরেন বেশকিছু জনবিচ্ছিন্ন দলীয় এমপির বিতর্কিত কর্মকাণ্ড।

advertisement 4

আওয়ামী লীগের একজন সাংগঠনিক সম্পাদক আমাদের সময়কে জানান, সেপ্টেম্বরে প্রধানমন্ত্রীর প্রথমে দিল্লি পরে লন্ডন ও যুক্তরাষ্ট্র সফরে যাওয়ার কথা। নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দেবেন তিনি। তাই সেপ্টেম্বরে জেলা নেতাদের সঙ্গে তার বসার সুযোগ হবে কিনা এখনই নিশ্চিত নয়। কিন্তু সুযোগমতো তিনি পূর্ব নির্ধারিত জেলা-উপজেলার সম্মেলনে বা দলের বিশেষ কোনো আয়োজনে ভার্চুয়ালি অংশ নিতে পারেন। তবে অক্টোবরের প্রথম ও দ্বিতীয় সপ্তাহে সভার ৮ বিভাগের জেলার নেতাদের সঙ্গে বসে বর্ধিতসভা করবেন।

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন আমাদের সময়কে বলেন, রবিবার নেত্রী আমাদের ডেকেছেন। দলীয় অভ্যন্তরীণ বিষয়ে কথা হবে। এ নিয়ে বাইরে কথা বলতে চাই না। জেলা-উপজেলার নেতাদের নিয়ে বর্ধিতসভার পূর্ব প্রস্তুতি নিয়ে কথা হতে পারে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে আমি জানি না।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, জেলা উপজেলার নেতাদের নিয়ে বর্ধিতসভা হবে এবং এটা সেপ্টেম্বর মাসেই শুরু হবে। কোন প্রক্রিয়ায় হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, জেলা পর্যায়ে আগে হতে পারে, পরে উপজেলা পর্যায়ে, তার পর বিভাগীয় পর্যায়ে চিন্তা হতে পারে। রবিবার দলের সাংগঠনিক সম্পাদকদের সঙ্গে নিয়ে নেত্রী বসবেন। এতে বর্ধিসভার পাশাপাশি দলের সাংগঠনিক তৎপরতা জোরদারের বিষয়, জাতীয় সম্মেলন তথা দলের কৌশলগত বিষয়ে কথা হতে পারে।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ফারুক খান বলেন, সাংগঠনিক সম্পাদকদের নিয়ে বৈঠকে কে কতটি সম্মেলন করেছে এ বিষয়ে নিশ্চয়ই কথা হবে। এ ছাড়া দলীয় কাউন্সিলকে কেন্দ্র করে আমরা জেলা-উপজেলা পর্যায়ের সম্মেলন করছি। সুতরাং এসব বিষয় তো আলাচনা আসাই স্বাভাবিক। জেলা, উপজেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ের নেতাদের নিয়ে বর্ধিতসভা কবে হতে পারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় কাউন্সিলের আগে যা যা হওয়ার, সবই হবে। সময় হাতে আছে আমাদের।

advertisement