advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

নেই ডাক্তার নেই নার্স, নামেই হাসপাতাল
প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে

১২ আগস্ট ২০২২ ১২:০০ এএম
আপডেট: ১২ আগস্ট ২০২২ ০১:০২ এএম
advertisement

চিকিৎসা নাগরিক অধিকার। মানুষ হাসপাতালে যায় আরোগ্য লাভের আশায়। কিন্তু পরিস্থিতি এখন এমন যে, নিরাময়যোগ্য রোগব্যাধি নিয়ে হাসপাতালে গেলেও এখন অপচিকিৎসার শিকার হয়ে ফিরতে হয় লাশ হয়ে।

advertisement 3

গতকাল দৈনিক আমাদের সময়ের এক প্রতিবেদনে জানা যায়, কিশোরগঞ্জের নিকলী উপজেলার হাবিয়া খাতুন জেনারেল হাসপাতাল। সম্প্রতি প্রসববেদনা নিয়ে স্থানীয় এক নারী ভর্তি হয়েছিলেন সেখানে। কিন্তু তার স্বজনরা জানতেন না, এটি কেবল নামেই হাসপাতাল। এখানে নেই কোনো চিকিৎসক, নার্স বা টেকনোলজিস্ট। একপর্যায়ে বিষয়টি বুঝতে পেরে ওই নারীকে অন্য হাসপাতালে নিয়ে যেতে চান স্বজনরা। কিন্তু জোরপূর্বক তাদের আটকে রাখে হাবিয়া খাতুন জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। ভুল গ্রুপের রক্ত প্রবেশ করানোয় ওই নারীর সারা শরীর ফুলে ওঠে এবং কিডনি বিকল হয়ে মুমূর্ষু হয়ে পড়েন। এর পর উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে প্রথমে কিশোরগঞ্জ ও পরে ঢাকায় আনা হয়। সেই নারীকে শেষ পর্যন্ত বাঁচানো সম্ভব হলেও তার সন্তানকে বাঁচানো যায়নি। যা খুবই দুঃখজনক। আমাদের গ্রামপর্যায়ে চিকিৎসাসেবা শতভাগ নিশ্চিত করা যায়নি। চিকিৎসক, ওষুধ, চিকিৎসা-সরঞ্জাম সবকিছুরই সংকট সেখানে। এ ছাড়া নার্স ও প্যারামেডিকসের সংকট প্রকট। এ সংকট দূর করতে পারেন কমিউনিটি প্যারামেডিকরা। তারা ডাক্তার নন, তারা দক্ষ স্বাস্থ্যকর্মী। আর চিকিৎসার নামে চলছে এক ধরনের বাণিজ্য। সবচেয়ে দুঃখজনক বিষয় হলো- রোগীদের চিকিৎসা দেওয়ার ব্যাপারে চিকিৎসকদের অনীহা। জনসাধারণের জন্য মানসম্মত চিকিৎসাসেবা যেন নিছক প্রতিশ্রুতির মধ্যেই সীমাবদ্ধ না থাকে। শুধু কিশোরগঞ্জের নিকলী উপজেলার হাবিয়া খাতুন জেনারেল হাসপাতাল নয়- আরও অনেক হাসপাতালের চিত্র এমন। এ ব্যাপারে সরকারকে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। স্বাস্থ্যসেবার মতো একটি গুরুত্বপূর্ণ খাত নিয়ে অবহেলা করার কোনো সুযোগ নেই। মানুষের এই মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করা গণতান্ত্রিক সরকারের অন্যতম দায়িত্ব ও কর্তব্য। স্বাস্থ্যের মতো একটি জনগুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আরও কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে। জনসাধারণের জন্য মানসম্মত চিকিৎসাসেবা যেন নিছক প্রতিশ্রুতির মধ্যেই সীমাবদ্ধ না থাকে। অপচিকিৎসায় যেন আর একটি প্রাণও ঝরে না পড়ে। সেজন্য সবাইকে সচেতন থাকতে হবে।

advertisement 4

advertisement