advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

টিকটক বানাতে গিয়ে সেতু থেকে নদীতে ঝাঁপ, অতঃপর...

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৫ আগস্ট ২০২২ ০৯:০৪ এএম | আপডেট: ১৫ আগস্ট ২০২২ ১০:৪১ এএম
সংগৃহীত ছবি
advertisement

মুন্সীগঞ্জ সদরে টিকটক ভিডিও তৈরির জন্য মুক্তারপুর সেতু থেকে ধলেশ্বরী নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ মো. রাসেলের (১৮) মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল রোববার রাত ১০টার দিকে সেতু থেকে একটু দূরে নদীর মধ্যে তার মরদেহ ভেসে থাকতে দেখা যায়। স্থানীয়রা খবর দিলে নৌ পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের দল সেখানে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে।

মুক্তারপুর নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মো. আকবর হোসেন জানান, সেতুর আনুমানিক ১০০ গজ দূরে নদীর পশ্চিমপাড়ে মরদেহটি ভেসে ওঠে। রাত ১১টার দিকে মরদেহটি নদী থেকে তোলা হয়। স্বজনেরা ইতোমধ্যে মরদেহ শনাক্ত করেছে। প্রাথমিকভাবে মরদেহে আঘাতের কোনো চিহ্ন পাওয়া যায়নি।

advertisement 3

উল্লেখ্য, গত শনিবার বেলা আড়াইটার দিকে জেলা শহরের উপকন্ঠ মুক্তারপুর এলাকার ষষ্ঠ বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতু থেকে দুই যুবক নদীতে ঝাঁপ দেয়। মো. হামিম (১৮) নদী থেকে সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও রাসেল নিখোঁজ ছিলেন।

advertisement 4

জানা গেছে, দুই যুবক মুক্তারপুরে অবস্থিত ডি এম ইন্টারন্যাশনাল হ্যাঙ্গার কোম্পানিতে শ্রমিকের কাজ করতেন। শনিবার দুপুর ২টায় তাদের ডিউটি শেষ করে তারা নদীতে গোসলের উদ্দেশে সেতুর উপর থেকে ঝাঁপ দেয়। কিন্তু একজন সাতঁরে তীরে উঠলেও অপরজন নিখোঁজ হন।

পুলিশ জানায়, রাসেল বরিশালের হিজলা থানার বরজানিয়া গ্রামের হেলাল উদ্দিনের ছেলে। তিনি মুন্সীগঞ্জের দশকানী এলাকার আনোয়ার হাওলাদারের ভাড়াটিয়া।

advertisement