advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বেকায়দায় নেটফ্লিক্স
নতুন প্রতিদ্বন্দ্বী ডিজনি

আজহারুল ইসলাম অভি
১৬ আগস্ট ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ১৬ আগস্ট ২০২২ ০৯:১৩ এএম
advertisement

বিনোদন জগতের এক অন্যতম মাধ্যম এখন ভিডিও স্ট্রিমিং সার্ভিস কিংবা ওটিটি। বিশেষ করে করোনার প্রাদুর্ভাব চলাকালে বেশ ফুলেফেঁপে উঠেছিল এই ব্যবসা। কিন্তু পৃথিবী আবার স্বাভাবিক নিয়মে চলা শুরু করলেও স্ট্রিমিং বিজনেসে ভাটা পড়েনি, উল্টা বিনোদনের নতুন একটি মাধ্যম হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছে এটি। তবে বেড়েছে প্রতিযোগিতাও। আর ওই প্রতিযোগিতায় বেশ বিপদে পড়েছে স্ট্রিমিং জগতের মহারথী হিসেবে পরিচিত নেটফ্লিক্স। এ বিষয়ে বিস্তারিত জানিয়েছেন-

আজহারুল ইসলাম অভি

advertisement 3

ভিডিও স্ট্রিমিং এখন বিনোদন জগতের অন্যতম এক মাধ্যম। ভিডিও স্ট্রিমিংয় সার্ভিসের শুরু থেকেই নেটফ্লিক্স ছিল রাজার আসনে। বিশেষ করে করোনা চলাকালে বেশ ভালোই ফুলেফেঁপে উঠেছিল এই ব্যবসা। কিন্তু এতেই যেন কপাল পুড়ল নেটফ্লিক্সের। বাড়ল প্রতিযোগিতা। কয়েক বছর ধরে প্রতিষ্ঠানটির একচ্ছত্র আধিপত্যে ধীরে ধীরে ভাগ বসানো শুরু করছিল অনেকে। ভাগ বসাতে বসাতে এমন এক অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে যে, এখন উল্টো গ্রাহক হারাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। যদিও স্ট্রিমিং ব্যবসা এখনো বিনোদন জগতে ‘ভালো’ পরিস্থিতিতে আছে, তবুও গত মাসের শেষের দিকে নেটফ্লিক্স জানায়- তাদের সাবস্ক্রাইবারের সংখ্যা প্রায় ১০ লাখ কমে গেছে। বছরের প্রথম প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদনে দ্বিতীয় প্রান্তিকে বিশ্বব্যাপী ২০ লাখ গ্রাহক হারানোর আশঙ্কার কথা বলেছিল কোম্পানিটি। দ্বিতীয় প্রান্তিকে বিশ্ববাজারে এত সংখ্যক গ্রাহক না হারালেও কেবল যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায় সংখ্যাটি একেবারে কমও নয়- মোট ১২ লাখ ৮০ হাজার। তবে অন্যান্য দেশের গ্রাহক সংখ্যার উত্থান-পতনের সঙ্গে সমন্বয়ের পর প্ল্যাটফরমত্যাগী গ্রাহকের সংখ্যা নেমে এসেছে ১০ লাখে। যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায় নেটফ্লিক্সের গ্রাহক সংখ্যা এখন প্রায় ৭ কোটি ৩৩ লাখ। আর বিশ্বব্যাপী গ্রাহক সংখ্যা ২২ কোটির কিছু বেশি। বিজ্ঞাপন সমর্থিত ‘সস্তা’ সাবস্ক্রিপশন সেবা নির্মাণে মাইক্রোসফটের সঙ্গে জোট বাঁধার ঘোষণা দেওয়ার এক সপ্তাহের মাথায় বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে প্ল্যাটফরমটি। প্ল্যাটফরমের বিদ্যমান প্যাকেজগুলো বিজ্ঞাপনমুক্ত থাকবে বলে নিশ্চিত করেছেন প্ল্যাটফরমটির শীর্ষ নেতৃত্ব। গ্রাহক কমলেও আগের বছরের একই সময়ে তুলনায় আয় বেড়েছে নেটফ্লিক্সের। ২০২১ সালের দ্বিতীয় প্রান্তিকে কোম্পানির আয় ছিল ৭৩০ কোটি ডলার। এক বছরের ব্যবধানে আয় বেড়ে পৌঁছেছে ৭৯০ কোটি ৭০ লাখে।

advertisement 4

প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ভার্জ জানিয়েছে, দ্বিতীয় প্রান্তিকে প্ল্যাটফরমটি সবচেয়ে বেশি সমর্থন পেয়েছে ‘স্ট্রেঞ্জার থিংস’ সিরিজের চতুর্থ সিজন থেকে। প্ল্যাটফরমটিতে সবচেয়ে বেশি দেখা সিরিজের মধ্যে দ্বিতীয় স্থানে আছে এটি। দ্বিতীয় প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদনে ‘দ্য লেগো মুভি’র নির্মাতা স্টুডিও ‘অ্যানিমেল লজিক’ কেনার পরিকল্পনাও জানিয়েছে নেটফ্লিক্স। এই গ্রাহক হারানোর সময়ে ডিজনি জানায় ভিন্ন খবর। এক বার্তায় ডিজনি জানিয়েছে, তাদের মালিকানায় থাকা মোট তিনটি স্ট্রিমিং প্ল্যাটফরম যথা- ডিজনি প্লাস, হুলু, ইএসপিএন প্লাসে মোট সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা ২২১ মিলিয়ন ছাড়িয়েছে। এর মধ্যে শুধু ডিজনি প্লাসে গত প্রান্তিকে নতুন সাবস্ক্রাইবার যুক্ত হয়েছে ১৪ দশমিক ৪ মিলিয়ন। অর্থাৎ দর্শকের মধ্যে এখনো আকর্ষণ তৈরি করে রেখেছে ডিজনি।

নেটফ্লিক্সের বর্তমান সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা ২২০ মিলিয়নের চেয়ে কিছুটা বেশি। শুধু ডিজনি প্লাসের কথা বিবেচনা করলে এখনো এগিয়েই আছে নেটফ্লিক্স। কিন্তু ডিজনির তিনটি ওটিটির কথা চিন্তা করলে ডিজনির চেয়ে পিছিয়ে পড়েছে নেটফ্লিক্স। সবকিছু মিলিয়ে বেকায়দায় আছে নেটফ্লিক্স, এগিয়ে যাচ্ছে ডিজনি। প্রতিযোগিতায় উত্থান-পতন থাকলেও এই অবস্থা কেটে যাবে বলেও মনে করে নেটফ্লিক্স।

 

 

advertisement