advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

‘অপারেশন সুন্দরবন’ নিয়ে যা বললেন রিয়াজ

বিনোদন প্রতিবেদক
২০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১২:৫৫ পিএম | আপডেট: ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০২:২৯ পিএম
চিত্রনায়ক রিয়াজ। ছবি : সংগৃহীত
advertisement

আগামী শুক্রবার মুক্তি পাচ্ছে সুন্দরবনকে দস্যুমুক্ত করার দুঃসাহসিক অভিযানের গল্পে নির্মিত সিনেমা ‘অপারেশন সুন্দরবন’। এতে অভিনয় করেছেন দেশের নন্দিত অভিনেতা রিয়াজ আহমেদ। দীপংকর দীপনের পরিচালনায় সিনেমায় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার চরিত্রে দেখা যাবে তাকে। ‘অপারেশন সুন্দরবন’ দিয়ে প্রায় সাত বছর পর পর্দায় ফিরছেন এই অভিনেতা। সিনেমা ও সমসাময়িক বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন তিনি।

অনেক দিন পর আপনার নতুন সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে। কেমন লাগছে?

advertisement 3

শিল্পীদের কাছে নতুন ছবি মানেই অন্যরকম একটা আনন্দ। বলা যায়, ঈদের আনন্দ যেমন ঠিক তেমনই। আবার ভয়ও হয়, ছবিটি কি দর্শকদের প্রত্যাশা পূরণ করতে পারবে। ভয় আর আনন্দ দুই কাজ করছে।

advertisement 4

‘অপারেশন সুন্দরবন’ নিয়ে কতটুকু আশাবাদী?

অনেক দিন পর দর্শক বড় পর্দায় দেখবে, এমনটা ভেবে চিন্তেই ছবিতে অভিনয় করা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবনকে দস্যুমুক্ত করার পেছনে র‌্যাবের দুঃসাহসিক যে অভিযান ছিল, সেই গল্পই কিন্তু এই ছবিতে তুলে ধরা হয়েছে ছবিতে। গল্পটি কেমন হতে পারে- এবার একটু আন্দাজ করুন। এটা ভাবলেই তো শরীরে অন্যরকম একটা অনুভূতি কাজ করে। এই গল্পটাই দর্শক দেখবে। আর এই ছবির শুটিং করতে গিয়ে আমরা কোথায় কোথায় গিয়েছি, তা কল্পনাও করতে পারবেন না। সেসব স্থানের মনোরম প্রাকৃতিক দৃশ্য উঠে আসবে ক্যামেরায়। ছবিটি দেখলেই বুঝতে পারবেন কেন এতে অভিনয় করেছি। সব কিছু মিলিয়ে, আমি শতভাগ আশাবাদী।

এখন থেকে কী নিয়মিত অভিনয়ে পাওয়া যাবে?

আমি কি অভিনয় ছেড়ে দিয়েছি! প্রতিটি শিল্পীর মধ্যে ভালো গল্প আর চরিত্রে অভিনয় করার একটা নেশা কাজ করে। আমার মধ্যেও সেই নেশা আছে। ভালো গল্প ও চরিত্র না পেলে তো আর গৎবাধা অভিনয়ে গাঁ ভাসাতে চাই না। তাই ভালো গল্পের অপেক্ষায় ছিলাম, আছি আর আগামীতেও থাকব। আমৃত্যু অভিনয় করে যেতে চাই।

যে ধরনের গল্প-চরিত্রে কাজ করতে চান, এমনটা কি সবসময় পাবেন?

বিরতি কিন্তু মনের মতো গল্প না পাওয়ার কারণেই নেওয়া হয়। প্রয়োজনে আবারও বিরতিতে থাকব। আর বর্তমান সময়ে চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রিতে যে সুবাতাস বইছে, তাতে করে আমি আশাবাদী। এখন কিন্তু অনেক ভালো ভালো গল্পের ছবি তৈরি হচ্ছে। আর দর্শকও হলমুখী হচ্ছে। তাই আমাদের প্রত্যাশাও বেড়ে গেছে।

নতুন যে সিনেমাগুলোতে কাজ করেছেন, তা কী আপনার মনের প্রত্যাশা পূরণ করতে পেরেছে?

‘অপারেশন সুন্দরবন’ ছবিতে কাজ করে আত্মতৃপ্তি পেয়েছি। আর ‘মুজিব’ ছবিতে অভিনয় করে শুধু আত্মতৃপ্তি নয়, ইতিহাসের অংশও হয়েছি বলে মনে করি। এই ছবির সূত্র ধরে ভারতের গুণী নির্মাতা শ্যাম বেনেগালের কাছ থেকে অনেক কিছু শেখারও সুযোগ হয়েছে। আরও একটি ছবি ‘রেডিও’। যে ছবির গল্প ৭ মার্চের ভাষণকে কেন্দ্র করে। এটাও আমার অভিনয় ক্যারিয়ারের অন্যরকম একটি কাজ।

advertisement