advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মগবাজারের রানা হত্যা
আট বছর পর মূল আসামি তারেক গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১১:৪৪ পিএম
advertisement

রমনা থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান রানা হত্যা মামলার মূল আসামি ইকবাল হোসেন তারেককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার ঢাকার কেরানীগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার করা হয় তাকে। গতকাল শুক্রবার র‌্যাব ৩-এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আরিফ মহিউদ্দিন আহমেদ গণমাধ্যমে এ তথ্য জানিয়েছেন।

advertisement 3

শুক্রবার রাজধানীর কারওয়ানবাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে আরিফ মহিউদ্দিন আহমেদ জানান, রানাকে

advertisement 4

খুনের পর ছদ্মবেশে ছিলেন ইকবাল। পাল্টে ফেলেছিলেন নাম-পরিচয়। ঘন ঘন পরিবর্তন করেছেন পেশা ও অবস্থান।

আরিফ মহিউদ্দিন আরও জানান, মগবাজারের সুইফ কেব্?ল লিমিটেড নামে ডিশ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কাজ করতেন ইকবাল। ওই প্রতিষ্ঠানের মালিক ছিলেন কামরুল ইসলাম এবং তানভিরুজ্জামান রনি। তাদের সঙ্গে মাহবুবুর রহমান রানার ব্যবসায়িক বিরোধ ছিল। এ নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে বিভিন্ন সময় মারামারিও হয়েছে। এ বিরোধ থেকেই মাহবুবুর রহমানকে ২০১৪ সালের ২৩ জানুয়ারি মগবাজারে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

র‌্যাব ৩-এর অধিনায়ক বলেন, মাহবুবুর রহমান হত্যার ঘটনা তদন্ত শেষে ১৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেন তদন্ত কর্মকর্তা। তাদের মধ্যে ইকবালসহ গ্রেপ্তার হয়েছেন ১১ জন। বাকিরা পলাতক।

র?্যাব জানায়, ঘটনার পরই গ্রামের বাড়ি চাঁদপুরে গিয়ে চাষাবাদ শুরু করেন ইকবাল। এ কাজ ভালো না লাগায় তিনি যশোরে গিয়ে কিছুদিন পরিবহন শ্রমিক হিসেবে কাজ করেন। তার পর তিনি মাদককারবারে জড়ান। ২০১৯ সালে ঢাকায় এসে বিভিন্ন গার্মেন্টস থেকে পরিত্যক্ত কার্টন সংগ্রহ করে বিক্রি করছিলেন। ঢাকায়ও তিনি মাদককারবারে জড়িয়ে পড়েন। মাদকসহ তিনি একাধিকবার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে গ্রেপ্তারও হন। কিন্তু প্রতিবারই তিনি নিজেকে তাহের নামে পরিচয় দেন। তাই একাধিকবার গ্রেপ্তার হলেও হত্যামামলার বিষয়টি গোপন থেকে যায়। তার নামে হত্যা ও মাদককারবারসহ নানা অভিযোগে চারটি মামলা রয়েছে।

advertisement