advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

লবঙ্গ উপকারী হলেও অতিরিক্ত ব্যবহারে বাড়ে স্বাস্থ্যঝুঁকি!

অনলাইন ডেস্ক
২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১০:৫৫ এএম | আপডেট: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১০:৫৫ এএম
শরীর সুস্থ রাখতে লবঙ্গের ভূমিকা অনবদ্য।
advertisement

রান্নার মসলা হিসেবে লবঙ্গ আমরা প্রায় সকলেই চিনি। লবঙ্গ গাছের ফুলের কুঁড়ি শুকিয়ে তৈরি হয় লবঙ্গ। শরীরের বেদনানাশক এবং জীবানুনাশক উপদান উপস্থিতি রয়েছে লবঙ্গে । লবঙ্গ দিয়ে তৈরি তেলে প্রচুর পরিমাণে ইউজেনল উপাদান উপস্থিত রয়েছে, যা মানব দেহের জন্য খুবই কার্যকরী। শুধু কি শরীরের যত্ন, রান্নায় স্বাদ বৃদ্ধি করে এই উপকরণ। এই মসলাটি ঔষধি হিসেবে বেশ উপকারী হলেও কখনো কখনো এটিই বিপদের কারণ হয়ে উঠতে পারে।

প্রত্যেক খাবারের যেমন ভালো গুন থাকে তেমনি তার পাশাপাশি পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াও থাকে। সেই অনুযায়ী লবঙ্গের ভালো দিক এর পাশাপাশি পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াও রয়েছে। তাই অতিরিক্ত পরিমাণে লবঙ্গ খাওয়ার ফলে নানা পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে।  

advertisement

লবঙ্গ কীভাবে শরীরের যত্ন নেয়?

advertisement 4

১) সর্দি-কাশি, সাইনাসের ব্যথায় লবঙ্গ-তেল মালিশের উপকারিতা অনেকেই জানেন। এর অ্যান্টি-ব্যাক্টেরিয়া ও অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি গুণের জন্য দাঁতের ব্যথায় এটি খুব উপকারী। নিয়মিত লবঙ্গ ভেজানো জলে কুলকুচি করলে মাড়ির স্বাস্থ্য ভাল থাকবে।

২) বিভিন্ন কারণে পাকস্থলীর আলসারের সমস্যা বাড়ে। গবেষণা বলছে, লবঙ্গ পাকস্থলিতে মিউকাস উৎপাদনে সাহায্য করে। এই মিউকাসই সংক্রমণের হাত থেকে পাকস্থলীকে রক্ষা করতে ঢাল হিসাবে ব্যবহার করে।

তবে লবঙ্গের অতিরিক্ত ব্যবহার ডেকে আনতে পারে সমস্যাও। সেগুলো হলো?

১) অনেকে অকারণে মুখে লবঙ্গ রাখতে পছন্দ করেন। মাত্রাতিরিক্ত লবঙ্গ খেলে কিন্তু হিতে বিপরীত হতে পারে।

২) যাদের রক্তে শর্করার মাত্রা কমে যাওয়ার প্রবণতা রয়েছে, তাদের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত লবঙ্গ সেবন হাইপারগ্লাইসিমিয়ার কারণ হতে পারে।

৩) লবঙ্গ থেকে কিন্তু হতে পারে অ্যালার্জিও। তাই লবঙ্গ খেয়ে দেখুন কোনও সমস্যা হচ্ছে কি না। র‌্যাশ বা চুলকানি কিছু দেখা দিলে লবঙ্গ খাওয়া বন্ধ করা প্রয়োজন।

 

 

advertisement