advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

আসামি ধরতে না পারলেও হ্যান্ডকাপ উদ্ধার করেছে পুলিশ

কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি
২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০৭:১৫ পিএম | আপডেট: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০৭:১৭ পিএম
প্রতীকী ছবি
advertisement

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে পুলিশের হাত থেকে হ্যান্ডকাপসহ পালিয়ে যাওয়ার ঘটনার ১০ ঘন্টা পর পরিত্যক্ত অবস্থায় হ্যান্ডকাপটি উদ্ধার করেছে পুলিশ।

আজ বৃহস্পতিবার উপজেলার বসুরহাট পৌরসভা ৮ নম্বর ওয়ার্ড জামাইর টেক এলাকা থেকে হ্যান্ডকাপটি উদ্ধার করা হয়। তবে আসামি ইসমাইল হোসেন প্রকাশ বয়াতিকে এখনো গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

advertisement

পুলিশ জানিয়েছে, গতকাল বুধবার রাত ১টার দিকে জামাইর টেক এলাকার সাগর সওদাগরের দোকানের সামনে থেকে হ্যান্ডকাপটি উদ্ধার করা হয়। এরআগে গতকাল দুপুরে কোম্পানীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক রবিউল আলম মাদক ব্যবসায়ী ইসমাইল হোসেনকে গ্রেপ্তার করে। এ সময় ইসমাইল হ্যান্ডকাপ পরা অবস্থায় পালিয়ে যায়। পরে ইসমাইল হোসেন পালিয়ে যাওয়ার সহযোগিতা ও পুলিশের কাজে বাধার দেওয়ার অভিযোগে ৭ জনকে আটক করে পুলিশ।

advertisement 4

আটককৃতরা হলেন, আসামি ইসমাইল হোসেনের স্ত্রী জাহানারা আক্তার (৪০), তার মেয়ে মারজানা আক্তার (২০), আসামির বোন ছালেয়া খাতুন (৫৫), ছকিনা খাতুন (৫০), তার দুই ছেলে সৌরভ হোসেন (২২), মোশাররফ হোসেন (১৯) ও ইব্রাহীম খলিল উল্যাহ (১৯)। 

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাদেকুর রহমান জানান, পরিত্যক্ত অবস্থায় গতকাল রাতে হ্যান্ডকাপটি উদ্ধার করা হয়। পলাতক আসামি ইসমাইল হোসেন পালিয়ে যাওয়া ও পুলিশের কাজে বাধার অভিযোগে ৭ জনকে আটক করা হয়েছে। আসামিকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

উল্লেখ্য, গতকাল বুধবার দুপুরে বসুরহাট পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের জামাইর টেক এলাকার মাদক ব্যবসায়ী ইসমাইল হোসেন বয়াতিকে পুলিশ গাঁজাসহ আটক করে। এ সময় তাকে হ্যান্ডকাপ লাগানোর পর পুলিশের চোখে ফাঁকি দিয়ে ইসমাইল হ্যান্ডকাপসহ পালিয়ে যায়।

advertisement