advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

শুরুর অপেক্ষায় মেয়েদের এশিয়া কাপ

ক্রীড়া প্রতিবেদক
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১২:২৬ এএম
নারী ক্রিকেট দলের সদস্যরা
advertisement

দরজায় কড়া নাড়ছে মেয়েদের এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের অষ্টম আসর। প্রতিযোগিতার সঙ্গে সময়ের ব্যবধান মোটে একদিনের। রাত পোহালেই আগামীকাল পর্দা উঠবে এশিয়ান নারী ক্রিকেটারদের রোমাঞ্চকর লড়াই। টুর্নামেন্টে শিরোপা ধরে রাখাই লক্ষ্য বাংলাদেশের। এ যাত্রায় নিগার সুলতানাদের স্বপ্নযাত্রা শুরু হবে থাইল্যান্ড ম্যাচ দিয়ে। উদ্বোধনী ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ থাইল্যান্ড।

এ মুহূর্তে দারুণ ছন্দে আছেন বাংলাদেশের মেয়েরা। আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ^কাপ বাছাইপর্বের অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন মেয়েরা। দেশে ফিরে বিশ্রাম পর্যন্ত নেওয়ার সময় পাননি তারা। পাড়ি জমাতে হয়েছে সিলেটে। শহরের সুরমা পাড়েই বসছে এশিয়ার ক্রিকেটের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই।

advertisement

কিছু দিন আগে সংযুক্ত আরব আমিরাতে শেষ হয়েছে ছেলেদের এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টি। যেখানে ভরাডুবি হয়েছে সাকিব আল হাসানদের। অমন আশঙ্কা অবশ্য আগে থেকেই ছিল। তবে আশা দেখাচ্ছেন নারী ক্রিকেটাররা। টুর্নামেন্টের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন তারাই। নিগার-সালমারা গুঁড়িয়ে দেন ভারতের রাজত্ব। প্রথম ৬ আসরেই চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন ঝুলন-মিতালিরা। ২০১৮ সালে মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে তাদের হারিয়ে স্বপ্নের শিরোপা জেতে বাংলাদেশ।

advertisement 4

ভারত ফাইনালে উঠবে এবং শিরোপা জিতবে এটিই যেন মেয়েদের এশিয়া কাপের রীতি হয়ে উঠেছিল। সেই ধারায় গতবারই ছেদ পড়েছে। এবার অবশ্য শিরোপা উদ্ধারে মরিয়া হয়ে মাঠে নামবে সাবেক চ্যাম্পিয়নরা। তবে কাজটা কঠিন। কারণ এবারের আসর শুরুর আগেই তারা হারিয়েছে অভিজ্ঞ দুই ক্রিকেটার ঝুলন গোস্বামী ও মিতালি রাজকে। সম্প্রতি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন ঝুলন। আর ভারতীয় দলকে গত জুনে বিদায় জানিয়েছেন মিতালি। এ দুজনের অনুপস্থিতি ভারতের শিরোপা জয়ের স্বপ্নকে কিছুটা হলেও কঠিন করে দিয়েছে।

বাংলাদেশেরও চোখ শিরোপায়। এবার দলের আত্মবিশ^াস কয়েক গুণ বেড়ে যাওয়ার কারণ পরিচিত মাঠ ও দর্শকদের সামনে খেলতে পারার বাড়তি সুবিধাটা। দুদিন আগে বাংলাদেশ অধিনায়ক নিগার অতি আত্মবিশ্বাসী হয়েই সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‘আমরা ১১০ ভাগ আশাবাদী। কারণ নিজেদের মাটিতে খেলা এবং দল ভালো ছন্দে আছে। অবশ্যই চাইব ঘরের মাঠে যাতে শিরোপা নিজেদের কাছে থেকে যায়।’

প্রথম চার আসরের ফাইনালে হেরে যাওয়া শ্রীলংকা আর টিকিট কাটতে পারেনি শিরোপা নির্ধারণী লড়াইয়ের। ২০১২ ও ২০১৬ সালে ফাইনালে উঠেছিল পাকিস্তান। কিন্তু ভারতের কাছে তারাও স্বপ্ন জমা দিয়ে এসেছে। এই চারটি দলই এবার শিরোপা জয়ের দৌড়ে এগিয়ে আছে। এর বাইরে মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড ও সংযুক্ত আরব আমিরাত অংশ নেবে এবারের এশিয়া কাপে।

টুর্নামেন্ট হবে রাউন্ড রবিন লিগ রাউন্ড পদ্ধতিতে। প্রথম পর্বে প্রতিটি দল একে অন্যের মুখোমুখি হবে। পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ চার দল উঠবে সেমিফাইনালে। আগামী ১৫ অক্টোবর স্বপ্নের ফাইনাল। প্রতিযোগিতার সবকটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। প্রতিযোগিতায় নিজেদের এগিয়ে রাখছেন নিগার। তার ভাষায়, ‘আমরা ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন। আমাদের দলে অনেকেই আছে যারা এশিয়া কাপ (গত) খেলেছে। তাই তারা সবাই অভিজ্ঞ। ঘরের মাঠে যেহেতু খেলা, সেহেতু নিজেদের এগিয়ে রাখাই উচিত।’

 

advertisement