advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

জাপা নেতাকে কুপিয়ে বাম পা বিচ্ছিন্ন করার ঘটনায় মামলা

মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) প্রতিনিধি
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০৯:২৭ পিএম | আপডেট: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০৯:২৭ পিএম
জাপা নেতা শফিকুল ইসলাম। পুরোনো ছবি
advertisement

মঠবাড়িয়ায় শফিকুল ইসলাম (৪০) নামে এক জাতীয় পার্টির নেতাকে কুপিয়ে বাম পা বিচ্ছিন্ন করার ঘটনায় মামলা করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে শফিকুল ইসলামের মা মমতাজ বেগম বাদী হয়ে মঠবাড়িয়া থানায় ৭ জন নাম ও অজ্ঞাত ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করেন।

মামলায় আসামিরা হলেন, তুষখালী ইউপি চেয়ারম্যান শাহজাহান হাওলাদারের ছোট ভাই মো. নাসির হাওলাদার (৫০), চেয়ারম্যানের ছেলে শামীম হাওলাদার (৪২), ছোট মাছুয়া গ্রামের ছগির হাওলাদার (৪৫), মধ্য তুষখালী গ্রামের হাবিব আকন (৫৫), হাবিব আকনের ছেলে হুমায়ূন (২৫), মুছা শরীফ (৫০), বশির পঞ্চায়েত (৪২)।

advertisement

ঘটনার দিন পুলিশের হাতে আটক হওয়া মামলার প্রধান আসামি নাসির হাওলাদারকে ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আজ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। মামলায় অভিযোগ করা হয়, জমি, ব্যবসা সংক্রান্ত ও তুষখালী ইউনিয়ন বাজারে দুটি জমির মালিকানা নিয়ে প্রতিপক্ষের সঙ্গে শফিকুল ইসলামের দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছিলো। এ ঘটনায় বেশ কিছু মামলা আদালতে চলমান।

advertisement 4

পিরোজপুর জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মঠবাড়িয়া সার্কেল) মো. ইব্রাহিম জানান, অপরাধীদের গ্রেপ্তারে প্রশাসনের একাধিক টিম কাজ করছেন।

মঠবাড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহা. নূরুল ইসলাম বাদল বলেন, মামলার এক নম্বর আসামি মো. নাসির হাওলাদারকে আজ আদালতে পাঠানো হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

উল্লেখ্য, গতকাল সকালে একটি মোটরসাইকেল করে উপজেলা সদর আদালতে মামলায় হাজিরা দিতে শফিকুল ইসলাম বাড়ি থেকে বের হন। মঠবাড়িয়া-চরখালী আঞ্চলিক মহাসড়কের মাঝেরপুল এলাকায় পৌঁছালে অজ্ঞাত ৪ থেকে ৫জন শফিকুলের মোটরসাকেলের পিছন থেকে পরিকল্পিতভাবে থাক্কা মারে। এতে মোটরসাইকলের চালক ও শফিকুল সড়কের পাশে পড়ে যান। এরপর সন্ত্রাসীরা তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে বাম পা বিচ্ছিন্ন করে দেন। এছাড়া তার পেটে ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে জখম করে সড়কে ফেলে পালিয়ে যান।

advertisement