advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

কুয়েতে বাংলা স্কুলের অভাবে বিপাকে প্রবাসীরা

কুয়েত প্রতিনিধি
৪ অক্টোবর ২০২২ ০৭:৪২ পিএম | আপডেট: ৪ অক্টোবর ২০২২ ০৭:৪২ পিএম
কুয়েতে প্রবাসী শিক্ষার্থীরা। ছবি: আমাদের সময়
advertisement

গ্রীষ্মকালীন ৩ মাস ছুটির পরে চালু হল কুয়েতের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। দুই বছর করোনার বিধি-নিষেধের পরে স্বাভাবিক নিয়মে চলছে পাঠদান কার্যক্রম। 

কুয়েতে বাংলাদেশি স্কুল না থাকায় প্রবাসী বাংলাদেশির সন্তানরা বাধ্য হয়ে ভিনদেশী স্কুলে পড়াশোনা করছে। সহপাঠীরা ভিনদেশী হওয়াতে শিক্ষার্থীরা ঝুঁকছে ভিন্ন ভাষায়। ভুলে যাচ্ছে নিজ দেশের কৃষ্টি-কালচার, ইতিহাস ও ঐতিহ্য। 

advertisement

জীবিকার তাগিদে সত্তর দশক থেকে দেশটিতে প্রবেশ শুরু হয় বাংলাদেশিদের। সময়ের পরিক্রমায় অনেকেই নিজেদের মেধা শ্রম ও ধৈর্য কারণে সফলতা ও ভালো অবস্থান তৈরি করেছে। তাই তাদের সন্তানদের বাধ্য হয়ে ভারতীয়,পাকিস্তানিসহ ভিনদেশী স্কুল গুলোতে পড়ছে। ব্যয় হচ্ছে আয়ের বড় একটি অংশ। ফলে রেমিট্যান্স থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বাংলাদেশ।

advertisement 4

সৌদি আরব, আরব আমিরাতসহ অনেক দেশে বাংলাদেশি স্কুল রয়েছে। তাই কুয়েত সরকারের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা করে দেশটিতে বাংলাদেশি স্কুল স্থাপনের উদ্যোগ নিতে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি অনুরোধ করেন বাংলাদেশি কমিউনিটির নেতারা।

 

 

 

advertisement