advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

আ.লীগ জাতির বোঝা, না সরালে সবাই ডুববে

মির্জা ফখরুল ইসলাম, মহাসচিব, বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৪ নভেম্বর ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৩ নভেম্বর ২০২২ ১১:৩৮ পিএম
advertisement

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আওয়ামী লীগ এখন আমাদের জন্য, জাতির জন্য বিশাল বোঝা হয়ে গেছে। এই বোঝাকে যদি কাঁধ থেকে সরাতে না পারি, তা হলে এদের সঙ্গে আমরা সবাই ডুবে যাব, ডুবতে বসেছি। গতকাল বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে

advertisement

নাগরিক ঐক্যের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত আলোচনাসভায় তিনি এসব কথা বলেন। ‘দেউলিয়াত্ব গোছাতে দুর্ভিক্ষের নাটক? দেশ কোন পথে?’ শীর্ষক সভায় মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন সমন্বয়ক ড. জাহিদ-উর রহমান।

advertisement 4

নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্নার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক শহীদুল্লাহ কায়সারের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি, নাগরিক ঐক্যের এস এম আকরাম, মোমিনুল ইসলাম, জিন্নুর চৌধুরী দিপু, মোফাখখারুল ইসলাম নবাব, ভাসানী অনুসারী পরিষদের আক্তার হোসেন প্রমুখ।

গণতন্ত্র ফেরানোর আন্দোলনকে ভিন্ন খাতে নিতে সরকার নতুন নাটক শুরু করেছে অভিযোগ করে মির্জা ফখরুল বলেন, নির্যাতন-নিপীড়ন, গুম, খুন, গায়েবি মামলা- এগুলো আমরা সব দেখছি। আবার নতুন করে দেখতে শুরু করেছি- তাদের মুখ দিয়ে আসছে অগ্নিসন্ত্রাসের কথা। আবার নতুন নাটক দেখলাম আদালতপাড়া থেকে জঙ্গি ছিনতাই হয়ে যাওয়া। এগুলো সব নাটক। দেশে যে আন্দোলন শুরু হয়েছে, এটাকে ডাইভার্ট করে অন্যদিকে নিয়ে যাওয়াই হচ্ছে এর মূল লক্ষ্য।

আন্দোলন একমাত্র পথ উল্লেখ করে তিনি বলেন, একে সরাবার পথ একটাই। জনগণের ঐক্য সৃষ্টি করে দুর্বার গণআন্দোলন তাদের পরাজিত করে সত্যিকার অর্থেই একটা সুষ্ঠু অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচনের মধ্য দিয়ে নতুন পার্লামেন্ট ও নতুন সরকার তৈরি করতে হবে। পুলিশ-সিভিল প্রশাসনই বলুন- সব তোষামুদি বলেও মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল।

মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, আওয়ামী লীগের সামনে কোনো রাজনৈতিক ইস্যু নেই। এখন বাজারের দ্রব্যমূল্য বাড়ানোর প্রতিযোগিতা চলছে, বাজার নিয়ন্ত্রণ করছে সিন্ডিকেট, এদের ওপর সরকারের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আসুন, সরকারের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তুলি।

জোনায়েদ সাকি বলেন, মানুষের যে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে- এর উত্থানের সামনে সরকারের হম্বিতম্বি টিকবে না। সরকার এখন রীতিমতো কম্পমান ভয়ে। নিজেরা অন্যদের ভয় দেখাতে দেখাতে নিজেরা এখন ভয় পেতে শুরু করেছে। আমরা এই সরকারকে দ্রুত ফেলে দিতে পারব বলে মনে করি।

advertisement