advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

নির্বাচন কমিশনাররা মেরুদ-হীন তৃতীয় লিঙ্গের

কাদের সিদ্দিকী, সভাপতি, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ

সখীপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি
২৪ নভেম্বর ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৩ নভেম্বর ২০২২ ১১:৩৮ পিএম
advertisement

১৯৯৯ সালের ১৫ নভেম্বর যে ভোট চুরি হয়েছিল, তার চেয়ে বেশি ভোট চুরি হয়েছে ২০১৮ সালের নির্বাচনে। এখন আর আমি ’৯৯ সালের ভোট চুরির কথা বলতে চাই না। গতকাল বুধবার বিকালে টাঙ্গাইলের স্থানীয় ডাকবাংলো চত্বরে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি

advertisement

বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বীর উত্তম এ কথা বলেন। বর্তমানে যারা নির্বাচন কমিশনার হচ্ছেন তাদের মেরুদ-হীন, তৃতীয় লিঙ্গের বলেও এ সময় তিনি মন্তব্য করেন।

advertisement 4

নির্বাচন কমিশনার প্রসঙ্গে কাদের সিদ্দিকী বলেন, আবু হেনা সাহেব মেরুদ-ওয়ালা নির্বাচন কমিশনার ছিলেন। আর বর্তমানে যারা নির্বাচন কমিশনার হয়, তারা হলেন মেয়েও না ছেলেও না, মেরুদ-হীন তৃতীয় লিঙ্গের লোক। ১৯৯৯ সালের ১৫ নভেম্বর টাঙ্গাইল-৮ জাতীয় সংসদ উপনির্বাচনে সরকার কর্তৃক জনগণের ভোটের অধিকার হরণের প্রতিবাদে সখীপুরে জনসভা করে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জনসভায় তিনি আরও বলেন, কয়েকদিন ধরে শুনছি, বন বিভাগ নোটিশ দিয়েছে বাড়িঘর ছেড়ে দিতে হবে। এসব জমিতে রয়েছে মা-বাবার কবর, বাড়িঘর ও ফসল আবাদের জায়গা। তিনি বন বিভাগকে হুশিয়ারি দিয়ে বলেন, এক ইঞ্চি জমির মধ্যে যদি বন বিভাগ মাতব্বরি করতে যায়, তা হলে আমাকে খবর দেবেন। তাদের (বন বিভাগের লোক) সখীপুর থেকে বের করে দেওয়া হবে।

আবদুস ছবুর খানের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক হাবীবুর রহমান খোকা বীর প্রতীক, যুগ্ম সাধারণ ইকবাল সিদ্দিকী, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শামীম আল মনসুর আজাদ সিদ্দিকী, টাঙ্গাইল জেলা কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হালিম সরকার, টাঙ্গাইল জেলা কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সাধারণ সম্পাদক এটিএম সালেক হিটলু প্রমুখ।

advertisement