advertisement
advertisement
advertisement

দিনে দু’লিটার পানি পান কি সত্যিই প্রয়োজন, কী বলছে গবেষণা

অনলাইন ডেস্ক
২৯ নভেম্বর ২০২২ ১০:৪৪ এএম | আপডেট: ২৯ নভেম্বর ২০২২ ১১:১৭ এএম
শরীরে জলের ঘাটতি নানা রকম শারীরিক সমস্যার জন্ম দেয়
advertisement

শরীরকে সতেজ ও মনকে চাঙ্গা রাখতে ডাক্তারসহ প্রায় সবাই বলে থাকেন একজন মানুষের দিনে অন্তত দুই লিটার বা আট গ্লাস পানি পান করা উচিত। এ নিয়ে নতুন করে চালানো হয়েছে গবেষণা। এতে দেখা গেছে, দিনে আট গ্লাস পানি পান একজন মানুষের জন্য খুব বেশি। যদিও এ পরিমাণ পানি স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর নয়। তবে শরীরকে সতেজ রাখতে এত পানি পান করার প্রয়োজন নেই। 

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, স্কটল্যান্ডের আবেরদিন বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক পানি পানের ওপর গবেষণা চালিয়েছেন। তারা খুঁজে বের করার চেষ্টা করেছেন একজন মানুষের দিনে কতটুকু পানি পান করা প্রয়োজন? এ নিয়ে ২৩টি দেশের ৮ থেকে ৯৬ বছর বয়সী ৫ হাজার ৬০৪ জনের ওপর গবেষণা চালানো হয়।

advertisement

দ্য সাইন্সে প্রকাশিত এ গবেষণা প্রতিবেদনে দেখা গেছে, দিনে ১ দশমিক ৫ লিটার থেকে ১ দশমিক ৮ লিটার পানিই একজন মানুষের জন্য যথেষ্ঠ। যা প্রচলিত দুই লিটারের ধারণা থেকে কম। 

advertisement 4

এ গবেষণায় ব্যবহৃত পানিতে হাইড্রোজেন মোলেকিউলসের বদলে ডিউটারিয়ামের স্ট্যাবল ইসোটেপ দেওয়া হয়েছিল, যেটি প্রাকৃতিকভাবে মানবদেহে পাওয়া যায় এবং এর কোনো ক্ষতিকর দিক নেই। ডিউটারিয়ামের পরিমাণ কমিয়ে দেওয়ার বিষয়টি দেখিয়েছে কিভাবে দ্রুত শরীরে পানির চাহিদা তৈরি হচ্ছে। সাধারণত যেসব মানুষের শরীরে পানির চাহিদা বেশি তাদের পানিও বেশি পান করতে হয়। 

গবেষণায় আরও দেখা গেছে, যেসব মানুষ উষ্ণ ও আর্দ্র স্থানে বসবাস করেন, সঙ্গে অ্যাথলেট এবং গর্ভবতী ও বুকের দুধ খাওয়ানো মায়েদের বেশি পানি প্রয়োজন। কারণ, তাদের শরীরে পানির চাহিদা বেশি।

গবেষণার তথ্য মতে, ২০-৩৫ বছর বয়সী পুরুষের দেহে পানির দৈনিক চাহিদার পরিমাণ ৪ দশমিক ২ লিটার। অন্যদিকে ২০-৪০ বছর বয়সী নারীদের পানির চাহিদার পরিমাণ ৩ দশমিক ৩ লিটার।

একজন গবেষক জানিয়েছেন, মানুষের শরীরের চাহিদার পরিমাণ পানি পান করতে হয় না। কারণ, খাবারের মাধ্যমেও পানির প্রয়োজনীয়তা পূরণ হয়। 

advertisement