advertisement
advertisement
advertisement

জঙ্গি ছিনতাই: ১০ আসামি ফের ৫ দিনের রিমান্ডে

আদালত প্রতিবেদক
১ ডিসেম্বর ২০২২ ০২:৪৯ পিএম | আপডেট: ১ ডিসেম্বর ২০২২ ০৬:৪৮ পিএম
ছবি: সংগৃহীত
advertisement

পুলিশের চোখে স্প্রে করে আনসার আল ইসলামের মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামিকে ছিনিয়ে নেওয়ার মামলায় ১০ আসামির ফের পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আজ বৃহস্পতিবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শফি উদ্দিন রিমান্ডের এ আদেশ দেন।

এর আগে মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) পরিদর্শক মুহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ আসামিদের আদালতে হাজির করে প্রত্যেকের পাঁচ দিন করে রিমান্ড আবেদন করেন।

advertisement

রিমান্ডে যাওয়া আসামিরা হলেন- শাহীন আলম ওরফে কামাল, শাহ আলম ওরফে সালাউদ্দিন, বি এম মজিবুর রহমান, সুমন হোসেন পাটোয়ারী, আরাফাত রহমান, খাইরুল ইসলাম ওরফে সিফাত, মোজাম্মেল হোসেন, শেখ আব্দুল্লাহ, আ. সবুর, রশিদুন্নবী ভূঁইয়া। এর আগে গত ২০ নভেম্বর এ আসামিদের ১০ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

advertisement 4

এ মামলায় ঈদী আমিন, মেহেদী হাসান অমি ওরফে রাফি, ঈদী আমিনের বোন খোদেজা আক্তার লিপি, মামা শ্বশুড় নাসির মিয়া ফারুক ও তানভীর হোসেন রিমান্ডে রয়েছেন।

মামলা থেকে জানা যায়, পুলিশ পরিদর্শক মহিউদ্দিন ফারুকীর উপর হামলার মামলায় ২০ জন আসামি। গত ২০ নভেম্বর ঢাকার সিজেএম ভবনের ৮ তলার ঢাকার সন্ত্রাস দমন ট্রাইব্যুনালে মোহাম্মদপুর থানার এ মামলার চার্জগঠনের জন্য ছিল। সেদিন পালিয়ে যাওয়া মইনুল হাসান শামীম ও আবু সিদ্দিক সোহেলসহ কারাগারে থাকা ১২ জনকে আদালতে হাজির করা হয়।

হাজিরা শেষে চারজনকে ঢাকা সিএমএম আদালতের হাজতখানায় নেওয়ার জন্য নিচে নামিয়ে ভবনের মূলগেটের বাইরে জনসন রোডস্থ রাস্তায় চার জন পুলিশ তাদের নিয়ে আসেন। ওই সময় দুটি মোটরসাইকেলে চার অজ্ঞাতনামা সন্ত্রাসী প্রথমে পুলিশের চোখে স্প্রে মারে। এরপর একজন পুলিশ সদস্যকে মারধর করে দুজনকে নিয়ে চলে যায়। আহত পুলিশ সদস্য নূরে আজাদ।

প্রকাশক ব্লগার দীপন হত্যা মামলায় আট জনকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। পালিয়ে যাওয়া মইনুল হাসান শামীম ও আবু সিদ্দিক সোহেল তাদের মধ্যে দুজন। এই ঘটনায় ছয় পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। ঘটনার দিন রাতেই কোতোয়ালি থানায় একটি মামলা হয়।

advertisement