advertisement
advertisement
advertisement

দক্ষিণ আফ্রিকায় ভালো কিছুর আশায় নাদেল

নারী টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট বিশ্বকাপ

ক্রীড়া প্রতিবেদক
২৫ জানুয়ারি ২০২৩ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৫ জানুয়ারি ২০২৩ ১১:৩৭ এএম
শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল। ছবি: সংগৃহীত
advertisement

আগামী ১০ ফেব্রুয়ারি থেকে দক্ষিণ আফ্রিকায় শুরু হবে আইসিসি নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আসর। আসন্ন বিশ্বকাপে মেয়েরা ভালো কিছুই উপহার দেবে বলে প্রত্যাশা করছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) নারী উইংয়ের চেয়ারম্যান শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল। বিশ্বকাপে অংশ নিতে গত সোমবার দক্ষিণ আফ্রিকার বিমান ধরে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল।

দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউনে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে নিজেদের তৈরি করবেন মেয়েরা। কেননা দক্ষিণ আফ্রিকার কন্ডিশনে আসন্ন টুর্নামেন্টটি চ্যালেঞ্জের। শফিউল চৌধুরী নাদেলও এমনটাই মনে করেন।

advertisement

তিনি বলেন, ‘প্রতিটি ম্যাচই আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ। বিশেষ করে প্রতিটি ট্যুর কিংবা আসরগুলো। এ টিমে অনেক অভিজ্ঞ খেলোয়াড় আছে। দীর্ঘ দিন ধরে তারা জাতীয় দলের হয়ে খেলছে। বিগত দিনগুলোতে তারা যথেষ্ট ভালো করেছে; যদি আমরা অনূর্ধ্ব-১৯-এর ফল দেখি। দক্ষিণ আফ্রিকায় আমাদের এই ট্যুর চ্যালেঞ্জ যদিও আছে, আমরা যে বিশ্বকাপ জিতে যাব সেটি বলছি না। তবে অবশ্যই আমাদের পারফরম্যান্স ভালো হবে। এখানে যে আমাদের গ্রুপটা, সেটিতে শক্তিশালী দলগুলো আছে। চারটা প্র্যাকটিস ম্যাচ আমরা পাব। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে, পাকিস্তানের বিপক্ষে, ভারতের বিপক্ষে। আমি মনে করি, দক্ষিণ আফ্রিকায় আমরা বিভিন্ন সময় গিয়েছি। খেলোয়াড়দের স্পষ্ট ধারণা আছে বলে মনে করি। যেহেতু আমরা চারটি প্র্যাকটিস ম্যাচ পাচ্ছি, এগুলো আমাদের মূল পর্বে সহায়তা করবে। আমি খুবই আশাবাদী যে আমরা ভালো কিছু অবশ্যই করব।’

advertisement 4

গত বছর নারী ক্রিকেটারদের নিয়ে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ অর্থাৎ ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক লিগ আয়োজনের গুঞ্জন উঠেছিল। তবে আগামী বছর নারী বিপিএল নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করবে বিসিবি।

এ প্রসঙ্গে নারী উইংয়ের প্রধান বলেন, ‘আমরা অনেক কিছুই তো করতে চাই। এই পুরুষতান্ত্রিক সমাজে বিভিন্নভাবেই কিন্তু আমরা মেয়েদের অবহেলা করি। এখনো আমরা যথেষ্ট রক্ষণশীল। আমরা আস্তে আস্তে এই সুযোগ-সুবিধাগুলো বাড়াচ্ছি। আমাদের বয়সভিত্তিক পর্যায়ের টুর্নামেন্ট শুরু হয়েছে। আমরা স্কুল ক্রিকেট শুরু করব, এরপর আমরা লংগার ভার্সনে যাব। এই কাজগুলো যদি আমরা একসঙ্গে করতে যাই তাহলে আমরা খুব ভালোভাবে শুরু করতে পারব না। প্রত্যেক বছরই আমরা একটা-দুইটা করে প্রোগ্রাম বাড়াচ্ছি। বিপিএলের মতো টুর্নামেন্টগুলো অনেক জাঁকজমকপূর্ণ হয় এবং নতুন খেলোয়াড় বের হয়ে আসে। অনেকের মনোযোগ এ দিকে থাকে। তবে আমি মনে করি, আমাদের বেস নিয়ে আরও কাজ করতে হবে।

 

advertisement