advertisement
advertisement
advertisement

পুলিশের আটকের চেষ্টা
ক্ষোভে নারীর বিষপান

নিজস্ব প্রতিবেদক, ব্রাহ্মণবাড়িয়া
২৫ জানুয়ারি ২০২৩ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৫ জানুয়ারি ২০২৩ ১২:০২ এএম
advertisement

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় পুলিশ ওয়ারেন্ট ছাড়া আটকের চেষ্টা করলে এক নারী ক্ষোভে বিষপান করেছেন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে ঢাকা মেক্যিাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গত সোমবার সন্ধ্যায় নুরপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

সেদিন সন্ধ্যায় আখাউড়া উপজেলার দক্ষিণ ইউনিয়নের নুরপুর গ্রামের আইয়ুব খানের মেয়ে মৌসুমী আক্তারকে (২৫) আটক করতে যায় পুলিশ। মাদক সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে তাকে আটক করতে চায় এএসআই আব্দুল আজিজের নেতৃত্বাধীন একটি দল। মৌসুমী আটকের কারণ জানতে চাইলে

advertisement

তাকে জোর করে নিয়ে যেতে চায় পুলিশ। একপর্যায়ে ক্ষোভে পুলিশের সামনেই বিষপান করে ফেলেন মৌসুমী। তার মা শাহানা বেগম বলেন, পুলিশের সামনে বিষপান করলেও কেউ তাকে ফেরাতে আসেনি। পরে আমরা মেয়েকে প্রথমে আখাউড়া হাসপাতালে নিয়ে যাই। সেখান থেকে চিকিৎসা দিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া হাসপাতালে পাঠাই। অবস্থার অবনতি হলে ঢাকা নিয়ে যাওয়া হয়।

advertisement 4

সোমবার রাতে আখাউড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মৌসুমীকে চিকিৎসা নিতে দেখা যায়। সে সময় থানার ওসি মো. আসাদুল ইসলামসহ পুলিশ সদস্যদের উপস্থিত থাকতে দেখা যায়। পরে রোগীকে ঢাকায় নেওয়া হলে তখনো এক পুলিশ সদস্য তাদের সঙ্গে যান। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. মো. লুৎফুর রহমান জানান, রোগীর স্টমাক ওয়াশ করে বিষ পাওয়া গেছে। প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ওয়ারেন্ট ছাড়াই পুলিশ মৌসুমীকে আটক করতে যায় বলে স্বীকার করেছেন আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আসাদুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘কিছু মাদক উদ্ধার হয়েছিল। তথ্য ছিল মাদকগুলো তাদের। এর পরিপ্রেক্ষিতে মৌসুমীকে আনতে পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। তার ঘরেও কিছু পাওয়া যায়নি।’ ওসি বলেন, এএসআই আজিজের কোনো অপরাধ থাকলে তার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

advertisement