advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

চট্টগ্রামে দুই ভ্যারিয়েন্টে বাড়ছে করোনা

তৈয়ব সুমন, চট্টগ্রাম
৯ মে ২০২১ ০০:০০ | আপডেট: ৮ মে ২০২১ ২৩:৫১
advertisement

চট্টগ্রামে অন্যসব জেলার থেকে বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হচ্ছে। আর মৃত্যুও হচ্ছে বেশি। গবেষকদের ধারণা, চট্টগ্রামে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ আফ্রিকার ধরনের সঙ্গে মিল থাকায় সংক্রমণ বাড়ছে। এই দুই ধরন দ্রুত সংক্রমিত করতে পারে।

চট্টগ্রামে করোনা শনাক্তের ১৩তম মাসে এসে আগের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। মার্চ ও এপ্রিলের সংক্রমণের ধারা ঊর্ধ্বগতি থাকায় বেড়েছে শনাক্ত ও মৃত্যু। শুধু এপ্রিলে শনাক্ত হয়েছে দশ হাজারের বেশি রোগী। একই সঙ্গে মৃত্যু হয়েছে ১৩৬ জনের। চট্টগ্রামে গত বছরের ৩ এপ্রিল করোনা শনাক্তের পর এত মৃত্যু হয়নি কোনো মাসে।

১৩ মাসের তথ্য পর্যালোচনা করলে দেখা যায়, চট্টগ্রামে প্রথম রোগী শনাক্তের মাস বাদ দিলে সবচেয়ে কম রোগী শনাক্ত হয়েছিল গত বছর সেপ্টেম্বরে আর সবচেয়ে কম মৃত্যু হয় এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে।

গত বছরের মে মাসের মাঝামাঝি থেকে সংক্রমণ বাড়তে শুরু করলেও আগস্টের তৃতীয় সপ্তাহ থেকে সংক্রমণ কমতে শুরু করে। মাঝে নভেম্বর-ডিসেম্বরে কিছুটা বাড়ে। এ বছরের প্রথম দুই মাস সংক্রমণ ও মৃত্যুহার কম থাকলেও মার্চে সংক্রমণে বেড়ে এপ্রিলে রেকর্ড করেছে।

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) করোনা গবেষক দলের সদস্য ডা. ইফতেখার আহমেদ রানা বলেন, গবেষণায় দেখা গেছে চট্টগ্রামের করোনা ভাইরাসের ধরনের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ আফ্রিকার ধরনের মিল রয়েছে। এ নতুন দুটি ভ্যারিয়েন্ট সংক্রমণ বাড়াতে ভূমিকা রাখছে। যুক্তরাজ্য ও দক্ষিণ আফ্রিকার নতুন দুটি ভ্যারিয়েন্টে মানুষ সংক্রমিত হয়েছে বেশি। তিনি আরও বলেন, চট্টগ্রামে সংক্রমণ বাড়ার অন্যতম কারণ হচ্ছে নতুন ভ্যারিয়েন্ট। ৬০ শতাংশ ইউকে ভ্যারিয়েন্ট এবং ৩০ শতাংশ দক্ষিণ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট সক্রিয় রয়েছে। নতুন ভ্যারিয়েন্ট আগের ভাইরাসের তুলনায় তিনগুণ বেশি সংক্রমণ ছড়ায়।

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. শেখ ফজলে রাব্বী আমাদের সময়কে বলেন, স্বাস্থ্যবিধি না মানা, মাস্ক না পরা ও নতুন ভ্যারিয়েন্টের কারণে সংক্রমণ অধিক হারে বেড়েছে। এ ছাড়া সাধারণত গরমে সংক্রমণ বাড়ে। তিনি আরও বলেন, চট্টগ্রামে গত ২৪ ঘণ্টয় ৯৩৬টি নমুনা পরীক্ষা করে করোনায় শনাক্ত হয়েছেন ১৩৬ জনের। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫১ হাজার ১৯। এদিকে নতুন করে আরও তিনজনের মৃত্যু হয়েছে করোনায়। এখন মোট মৃতের সংখ্যা ৫৫৫ জনে দাঁড়িয়েছে চট্টগ্রামে।

advertisement