advertisement
DARAZ
advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

মুখোমুখি মেসি রোনালদো?

ক্রীড়া ডেস্ক
২৫ জুলাই ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৪ জুলাই ২০২১ ১১:৪৫ পিএম
advertisement

বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গন এখন বুঁদ দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ অলিম্পিকে। আগামী ৮ আগস্ট পর্দা নামবে অলিম্পিকের এবারের আসরের। এর কয়েক দিনের মধ্যেই শুরু হয়ে যাবে ইউরোপিয়ান ফুটবলের নতুন মৌসুম। তবে এর আগে ফুটবলপ্রেমীদের জন্য অপেক্ষা জমজমাট একটি ম্যাচ। অলিম্পিকের সমাপনী দিনেই (৮ আগস্ট) হুয়ান গাম্পার ট্রফির ম্যাচে মুখোমুখি হবে ইউরোপের দুই অন্যতম সেরা ক্লাব বার্সেলোনা ও জুভেন্টাস।

বার্সেলোনার ঘরের মাঠ ন্যু ক্যাম্প নতুন করে খোলা হবে এই ম্যাচের মধ্য দিয়েই। যেখানে থাকবে ধারণক্ষমতার ২০ শতাংশ দর্শক। দুই ক্লাবেরই নারী দলও একে অন্যের বিপক্ষে খেলবে একটি ম্যাচ। তবে এ ম্যাচটির আগে একটা সংশয় অবশ্য রয়ে গেছে। বার্সেলোনার জাদুকর লিওনেল মেসি ও জুভেন্টাসের সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর জন্যই মূলত ম্যাচটিকে ঘিরে জন্ম নিয়েছে বাড়তি উত্তেজনা।

কিন্তু এই ম্যাচে মেসির খেলা হবে কিনা, তা এখনো নিশ্চিত নয়। কেননা স্প্যানিশ ক্লাবটির সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে মেসির, যা এখনো নবায়ন করেননি তিনি। স্পেনের বাতাসে বহু আগে থেকেই গুঞ্জন চলছে, বার্সার সঙ্গে পাঁচ বছরের চুক্তি নবায়ন করেছেন ৩৪ বছর বয়সী মেসি। কিন্তু কোনো পক্ষই তা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করেনি।

সূত্র মারফত ইএসপিএন জেনেছে, লা লিগার অর্থনৈতিক বিধিনিষেধের কারণে নতুন মৌসুম শুরুর আগেই মেসিকে সময়মতো নিজেদের খেলোয়াড় হিসেবে নিবন্ধন করাতে বেশ ঝামেলার মধ্যে রয়েছে বার্সা।

এদিকে জুভেন্টাসে রোনালদোর ভবিষ্যৎ নিয়েও গুঞ্জন আছে। আগামী মৌসুম শেষেই ক্লাবটির সঙ্গে তার চুক্তির মেয়াদ ফুরোবে। ইএসপিএন জানিয়েছে, রোনালদোর মুখপাত্র এরই মধ্যে ইউরোপের বেশ কিছু ক্লাবের সঙ্গে দেনদরবার শুরু করে দিয়েছেন।

নতুন মৌসুম শুরুর আগে হোয়ান গাম্পার প্রদর্শনী ট্রফির ম্যাচ আয়োজন করে থাকে বার্সা। ১৯৬৬ সাল থেকে এ প্রথা ধরে রেখেছে কাতালান ক্লাবটি। ২০০৫ গ্যাম্পার ট্রফিতে জুভেন্টাসের মুখোমুখি হয়ে টাইব্রেকারে হারের স্বাদ পেয়েছিলেন ১৮ বছর বয়সী মেসি।

গত ডিসেম্বরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ গ্রুপ পর্বের ফিরতি লেগে সর্বশেষ মেসির মুখোমুখি হন রোনালদো। বার্সার মাঠে সে ম্যাচে জুভেন্টাসের ৩-০ গোলের জয়ে পেনাল্টি থেকে জোড়া গোল করেন পর্তুগিজ তারকা। তার আগে প্রথম লেগে ঘরের মাঠে বার্সার কাছে ২-০ গোলে হারের ম্যাচটি তিনি খেলতে পারেননি কোভিড-১৯ পজিটিভ হওয়ার জন্য।

এবার গাম্পার ট্রফি দিয়ে ন্যু ক্যাম্পে ফেরার সুযোগ পাচ্ছেন দর্শকরা। মোট আসনসংখ্যার ২০ শতাংশ দর্শক ম্যাচটা দেখতে পারবেন। সংখ্যাটা আনুমানিক ১৯ হাজার ৮৬৯ জন। ১৬ বছর আগে গাম্পার ট্রফিতে জুভেন্টাসের বিপক্ষে সেই প্রদর্শনী ম্যাচে দারুণ খেলেছিলেন মেসি। তখন জুভেন্টাসের কোচ ফ্যাবিও কাপেলো মেসির খেলা দেখে এতটাই মুগ্ধ হয়েছিলেন, বার্সার কাছে তিনি আর্জেন্টাইন তারকাকে ধার হিসেবে চেয়েছিলেন। কিন্তু তখনকার বার্সা কোচ ফ্রাঙ্ক রাইকার্ড রাজি হননি। এবার গাম্পার ট্রফিতে প্রথমবারের মতো বার্সার নারী দলও মাঠে নামবে। অর্থাৎ দুটি প্রদর্শনী ম্যাচ হবে।

advertisement