advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

যুদ্ধের জন্য ইরাকে মার্কিন সেনা ‘প্রয়োজন নেই’

অনলাইন ডেস্ক
২৫ জুলাই ২০২১ ২২:১৯ | আপডেট: ২৫ জুলাই ২০২১ ২২:১৯
advertisement

ইরাকের প্রধানমন্ত্রী মুস্তাফা আল-কাজেমি বলেছেন, উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য মার্কিন সেনাদের তার দেশে প্রয়োজন নেই। তবে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক সময়সীমা ঘোষণা হবে চলতি সপ্তাহে মার্কিন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকের ফলাফলের পর।

বার্তা সংস্থা এপি-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মুস্তাফা আল-কাজেমি এসব কথা বলেছেন। তার এ সাক্ষাৎকার আজ রোববার প্রকাশিত হয়েছে। আগামীকাল হোয়াইট হাউসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী কাজেমির বৈঠক করার কথা রয়েছে। এর আগে এপি-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বললেন।

ইরাকি প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রশিক্ষণ এবং সামরিক গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহের জন্য ইরাক এখনো আমেরিকার কাছে সহযোগিতা চায় তবে কম্ব্যাট ট্রুপ প্রত্যাহার করার ব্যাপারে আমেরিকার কাছ থেকে সুনির্দিষ্ট সময়সীমা চাইবে। গত এপ্রিল মাসে ওয়াশিংটন এবং বাগদাদের মধ্যে আলোচনার পর আমেরিকা ইরাক থেকে সেনা প্রত্যাহারের কথা ঘোষণা করেছিল।

ইরাকের মাটি থেকে মার্কিন সেনাদের বহিষ্কারের ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী মুস্তাফা আল-কাজেমি সরকারের ওপর দিন দিন চাপ বাড়ছে, বিশেষ করে দেশটির প্রতিরোধকামী সংগঠনগুলো এই চাপ সৃষ্টি করেছে। এসব সংগঠন মনে করে মার্কিন সেনাদের উপস্থিতির কারণে ইরাকের ভেতরে অনেক সমস্যা তৈরি হচ্ছে। বহু সংগঠন প্রকাশ্যে বলেছে, মার্কিন সেনারা ইরাকের স্বার্থ বাদ দিয়ে ইহুদিবাদী ইসরাইলের স্বার্থ রক্ষা করছে।

২০২০ সালের জানুয়ারি মাসে ইরাকের মাটিতে ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র কুদস ফোর্সের সাবেক কমান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল কাসেম সোলাইমানি ও ইরাকের জনপ্রিয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হাশদ আশ-শাবির সেকেন্ড ইন কমান্ড আবু মাহাদি আল-মুহান্দিসকে হত্যার পর ইরাক থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের ব্যাপারে দাবি দিন দিন জোরালো হয়েছে। এ বিষয়ে ইরাকের সংসদে সর্বসম্মতিক্রমে একটি প্রস্তাবও পাস হয়েছে।

advertisement