advertisement
DARAZ
advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

শেবাচিম হাসপাতালের ফ্লোরই ভরসা

বরিশাল ব্যুরো
২ আগস্ট ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ১ আগস্ট ২০২১ ১০:৩০ পিএম
advertisement

বরিশাল বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় (রবিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত) করোনায় ৫ জন ও উপসর্গ নিয়ে ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময় ১ হাজার ৮৩৬ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৬৮৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৩৭ দশমিক ৩১ শতাংশ। এর আগের ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৮ ও উপসর্গ নিয়ে ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছিল। এ সময় ৬৮৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছিল ৩২২ জনের। শনাক্তের হার ছিল ৪৬ দশমিক ৮৭ শতাংশ। রবিবার বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক শ্যামল কৃষ্ণ ম-ল এ তথ্য জানিয়েছে।

স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমিত হয়ে মারা যাওয়া পাঁচজনের মধ্যে বরিশালে দুজন এবং বরগুনা, ভোলা ও পটুয়াখালীর একজন করে রয়েছেন। এ নিয়ে বিভাগে মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৪৭৪। করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ১১ জনের সবাই শেরে বাংলা মেডিক্যাল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ছিলেন। এ নিয়ে উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুর সংখ্যা ৭৭৬।

এদিকে শেবাচিম হাসপাতালের ৩০০ শয্যার করোনা ইউনিটে নতুন আসা রোগীর জন্য মিলছে না শয্যা।

রবিবার সকাল পর্যন্ত এ হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ছিল ৩৫৩ জন। শয্যা না পেয়ে মেঝেতে ঠাঁই নিয়েছে ৫৩ রোগী। করোনা ইউনিটের ২২টি আইসিইউ শয্যা গত এক মাস ধরে মুমূর্ষু রোগীতে পূর্ণ। জরুরি প্রয়োজনেও রোগীর জন্য মিলছে না আইসিইউ শয্যা। শেবাচিম হাসপাতালের পরিচালক ডা. এইচএম সাইফুল ইসলাম জানান, প্রতিদিন হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গড়ে ৩৫-৪০ জন রোগী ভর্তি হচ্ছে। অন্যদিকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরছেন ২০-২৫ জন। যার ফলে ইউনিটে রোগী সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে পেতে পরিপূর্ণ হয়ে এখন ফ্লোরে অবস্থান নিয়েছে।

আমাদের চিকিৎসকরা শতভাগ চিকিৎসাসেবা দিয়ে রোগীদের সুস্থ করার চেষ্টা চালিয়ে আসছেন বলে জানান পরিচালক।

advertisement