advertisement
DARAZ
advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

মুরাদনগরে তদারকির অভাবে রাস্তা বেহাল

মো. হাবিবুর রহমান, মুরাদনগর (কুমিল্লা)
২ আগস্ট ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ১ আগস্ট ২০২১ ১০:৩০ পিএম
advertisement

মুরাদনগর সদর ইউনিয়নের ঘোড়াশাল জলিল সওদাগরের বাড়ি থেকে সোনাউল্লাহ হোসেন মাস্টারের বাড়ি পর্যন্ত তিন কিলোমিটার রাস্তাটি পাঁচ গ্রামের কয়েক হাজার মানুষের দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। স্থানীয়দের দুর্ভোগের কথা চিন্তা করে প্রবাসী ও গ্রামবাসীদের নিজস্ব অর্থায়নে বেশ কয়েকবার রাস্তাটি মেরামত করা হলেও তদারকির অভাবে সড়কটি আজ?ও সম্পূর্ণ হয়ে ওঠেনি।

অধিকাংশ জায়গায় রাস্তাটির দুই পাশ ভেঙে এমন হয়েছে, যেখানে একজন মানুষ যাওয়ার সময় অপর প্রান্তের মানুষটিকে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়।

ঘোড়াশাল গ্রামের বাবুল মাস্টার বলেন, তিন কিলোমিটার রাস্তার মধ্যে একটি বাজার ও চারটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। স্কুল চলাকালীন এই বেহাল রাস্তাটি দিয়ে হাজার হাজার শিক্ষার্থী দুর্ভোগ মাথায় নিয়ে চলাফেরা করে। রাস্তাটি পাকা করা হলে শিক্ষার্থীসহ সর্বসাধারণের বহুদিনের ভোগান্তি লাগব হবে।

প্রবাসী কবির হোসেন বলেন, বিভিন্ন দেশে থাকা প্রবাসীদের কাছ থেকে চাঁদা তুলে রাস্তাটির মাটি ভরাটের কাজ করেছিলাম। মেরামতের অভাবে এটির আজ বেহাল দশা। বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম বলেন, বাজারের পাশেই আব্দুল করিম উচ্চ বিদ্যালয় ও ঘোড়াশাল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। একই রাস্তায় ঘোড়াশাল রকিব উদ্দিন আহম্মেদ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় অবস্থিত। করোনার কারণে স্কুলগুলো বন্ধ থাকায় ও বেহাল রাস্তার কারণে পুরনো বাজারটি এখন বলতে গেলে ক্রেতাহীন।

মুরাদনগর এলজিইডির উপজেলা প্রকৌশলী মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর কবির বলেন, রাস্তাটি সংস্কারের জন্য প্রায় দুই মাস পূর্বে একটি প্রাক্কলন তৈরি করে অনুমোদনের জন্য পাঠানো হয়েছে।

advertisement