advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

জরিমানার টাকা নিয়ে বিরোধ, কুপিয়ে হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক,বগুড়া
১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৪:৫২ পিএম | আপডেট: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৪:৫৮ পিএম
প্রতীকী ছবি।
advertisement

বগুড়ায় সালিসে জরিমানার ৩০ হাজার টাকা আদায় করা নিয়ে বিরোধে হাসান সরকার (৫০) নামের এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে হাসান সরকারকে কুপিয়ে জখম করা হয়। এরপর আজ শনিবার সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। নিহত হাসান সরকার বগুড়া পৌর এলাকার পালশা সরকার পাড়ার মৃত সামছু সরকারের ছেলে।

নিহতের ছেলে জাকির সরকার মৃদুল জানান, তার স্বামী পরিত্যক্তা চাচাতো বোনের সঙ্গে স্থানীয় এক যুবকের পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল। তাদের আপত্তিকর একটি ছবি একই এলাকার রুপম নামের এক যুবক হাতে পান। এরপর থেকে রুপম তার বোনের সঙ্গে সম্পর্ক করতে চান। কিন্তু বোন রাজি না হলে রুপম ওই ছবিগুলো বিভিন্নজনের মোবাইল ফোনে পাঠিয়ে দেন।

মৃদুল আরও জানান, তার বোন একটি মোবাইল ফোন কোম্পানির শো-রুমে চাকরি করতেন। সেখানেও ছবিগুলো পাঠানো হয়। এতে করে তার বোনের চাকরি চলে যায়। পরে এ বিষয়ে তার বাবা হাসান সরকার স্থানীয় পৌর কাউন্সিলরের কাছে নালিশ করেন। কয়েকদিন আগে পৌর কাউন্সিলর আমিনুল ইসলাম এলাকায় সালিস বসিয়ে রুপমকে দোষী সাব্যস্ত করে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। তাৎক্ষণিক জরিমানার টাকা না দিলেও সালিস মেনে নিয়ে টাকা পরে দেবে বলে জানান রুপম।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে ভবেরবাজার এলাকায় মেহেরা পাম্পের সামনে সালিসের জরিমানার টাকা নিয়ে রুপমের সঙ্গে হাসান সরকারের তর্ক-বিতর্ক হয়। এরপর হাসান সরকার পায়ে হেঁটে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে রুপম ধারালো অস্ত্র নিয়ে পেছন থেকে হামলা করে হাসান সরকারের মাথায় এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে যান। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে পরদিন ঢাকা মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার সকালে তিনি মারা যান।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বগুড়ার উপশহর পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক আব্দুর রশিদ জানান, শুক্রবার হাসানের ছেলে মৃদুল বাদী হয়ে হামলার ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। সেই মামলাটিই এখন হত্যা মামলা হিসেবে রূপান্তর হবে।

পুলিশের এই কর্মকর্তা আরও জানান, ঘটনার পর থেকেই রুপম পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করা হচ্ছে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে লাশ ময়নাতদন্ত করে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

advertisement