advertisement
DARAZ
advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

সাবমেরিন চুক্তি বিতর্ক
এক ফোনেই মান ভাঙল ফ্রান্সের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১১:০৫ এএম
প্রতীকী ছবি
advertisement

অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে সাবমেরিন চুক্তির জেরে বিষিয়ে উঠেছিল ফ্রান্স-যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক। বহু বছরের মিত্রতা ভুলে তিক্ততার সাগরে ডুবতে বসেছিল দ্বিপাক্ষিক কূটনীতি। ডেকে পাঠানো হয়েছিল ওয়াশিংটনে নিযুক্ত ফরাসি রাষ্ট্রদূতকেও। তবে জল বেশি দূর গড়াতে দেননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তার এক ফোনেই মান ভেঙেছে ফরাসিদের।

জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়েচে ভেলে জানিয়েছে, বুধবার ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রনের কাছে ফোন করেছিলেন বাইডেন। প্রায় আধা ঘণ্টা কথা হয়েছে তাদের। ম্যাক্রনকে বাইডেন বলেছেন, অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে সাবমেরিন চুক্তি করার আগে তাদের ফ্রান্সের সঙ্গে কথা বলে নেওয়া উচিত ছিল। এবার ভুল হলেও ভবিষ্যতে তা অবশ্যই করা হবে। বাইডেনের এ ‘সরল স্বীকারোক্তি’তেই বরফ গলেছে প্যারিসের।

বাইডেনের সঙ্গে কথা বলার পর ম্যাক্রন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, ওয়াশিংটনের রাষ্ট্রদূতকে আবার ফেরত পাঠানো হবে। আগামী সপ্তাহেই তিনি যুক্তরাষ্ট্রে যাবেন। সেখানে পৌঁছে মার্কিন কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করবেন ফরাসি দূত। তবে চুক্তি করার আগে আরও আলোচনা দরকার ছিল মানলেও বাইডেন অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে চুক্তি নিয়ে সরাসরি কিছু বলেননি। তিনি মূলত প্রক্রিয়াগত ভুলের কথা স্বীকার করেছেন। আগে পরামর্শ করা উচিত ছিল তা বলেছেন এবং ভবিষ্যতে পরামর্শ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। ম্যাক্রনের সঙ্গে ফোনালাপে এটিই ছিল বাইডেনের কৌশল। ফলে অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে প্রতিরক্ষা চুক্তিটি অটুট থাকছে। ফোনে কথা বলার পর আগামী অক্টোবরে মুখোমুখি বৈঠক করবেন যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টরা। বৈঠকটি হবে ইউরোপে। সেখানে সাবমেরিন-বিতর্কের পর দুই দেশের সম্পর্ককে আরও জোরদারের চেষ্টা হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

advertisement