advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

ইউপি সদস্যর বিরুদ্ধে ভিক্ষুকের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

লালপুর প্রতিনিধি
২৬ অক্টোবর ২০২১ ০৬:১৪ পিএম | আপডেট: ২৬ অক্টোবর ২০২১ ০৮:৩১ পিএম
ভুক্তভোগী রাবেয়া খাতুন। ছবি : আমাদের সময়
advertisement

স্বামীর মৃত্যুর ২৫ বছর পরেও মেম্বারকে টাকা দিয়ে বিধবা ভাতার কার্ড পাননি রাবেয়া খাতুন নামে এক ভিক্ষুক। ঘটনাটি ঘটেছে নাটোরের লালপুর উপজেলার আড়বাব ইউনিয়নের ঢুষপাড়া গ্রামে।

আজ মঙ্গলবার সরোজমিনে গেলে ঢুষপাড়া গ্রামের ভিক্ষুক রাবেয়া বলেন, ‘স্বামীর মৃত্যুর ২৫ বছর পর অনেক কষ্টে ভিক্ষা করে টাকা গুছিয়ে মেম্বার কফিল উদ্দিনকে সাড়ে ৪ হাজার টাকা দেওয়ার পরেও বিধবা ভাতার কার্ড পেলাম না।’

একই গ্রামের মর্জিনা বলেন, ‘কফিল মেম্বার বিধবা ভাতা কার্ড করে দেওয়ার কথা বলে আমার কাছ থেকে ৩ হাজার টাকা নিয়েও কার্ড করে দিচ্ছেন না।’ এ ছাড়া উপজেলার আড়বাব ইউনিয়নের ঢুষপাড়া গ্রামের মনোয়ারা ও আলতানীসহ অনেকের কাছ থেকে ৩ হাজার করে টাকা নিয়ে বয়স্ক ও বিধবা ভাতা কার্ড করে দেওয়ার কথা বলে টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে আড়বাব ইউনিয়নের  ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার কফিল উদ্দিনের বিরুদ্ধে। ভুক্তভোগীরা জানান, এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ করেও কোনো প্রতিকার পাননি তারা।

ইউপি সদস্য কফিল উদ্দিন বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে যে সব অভিযোগ করা হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট।’ এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উম্মুল বানীন দ্যূতি বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

advertisement
advertisement