advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

ভিন্ন ধর্মে বিয়ে না মানায় ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দিয়ে যুগলের আত্মহত্যা

অনলাইন ডেস্ক
২২ নভেম্বর ২০২১ ১১:৫৯ এএম | আপডেট: ২২ নভেম্বর ২০২১ ১২:৩৬ পিএম
ময়নাতদন্তের জন্য দেহ দু’টি কালনা মহকুমা হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ছবি : সংগৃহীত
advertisement

ভিন্ন ধর্মে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন, করতে চেয়েছিলেন বিয়ে। তবে তা মেনে নেয়নি পরিবার। যার জেরে চলন্ত ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দিয়ে আত্মঘাতী হলেন যুগল। গত শনিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে খামারগাছি ও বলাগড় স্টেশনের মাঝামাঝি জায়গায়। নিহতরা হলেন ভারতের হুগলি জেলার বলাগড় থানার সঞ্জিত সরকার ও রুবিনা খাতুন।

মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে, ১৬ বছর বয়স থেকেই একে অপরে সঙ্গে ভালোবাসার সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন সঞ্জিত ও রুবিনা। দু’জনের পরিবার ওই সম্পর্ক মানতে অস্বীকার করায় একবার বাড়ি ছেড়ে পালিয়েও গিয়েছিলেন তারা। পরে অবশ্য পুলিশের হস্তক্ষেপে ঘরে ফিরে এসেছিলেন সঞ্জিত ও রুবিনা।

আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, এরপরই অন্য ছেলের সঙ্গে মেয়ের বিয়ে দিয়ে দেয় রুবিনার পরিবার। কিন্তু তখনো সঞ্জিতের সঙ্গে তার সম্পর্ক চলমান ছিল। গোপনে যোগাযোগ করতেন তারা। কিন্তু আর কখনোই তাদের একসঙ্গে থাকা হবে না ভেবে শেষমেশ আত্মহত্যার পথ বেছে নেন রুবিনা ও সঞ্জিত।

এদিকে, দু’জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পূর্ব বর্ধমানের কালনা জিআরপি। ময়নাতদন্তের জন্য দু’টি দেহ কালনা মহকুমা হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

এ প্রসঙ্গে সঞ্জিতের বাবা সুভার সরকার বলেন, দুই পরিবারের কেউই ওদের সম্পর্ক মেনে নেয়নি। তাই হয়তো এই সিদ্ধান্ত।

advertisement
advertisement