advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

মাহমুদউল্লাহর ডেলিভারিকে বৈধ বলছেন সাবের হোসেন চৌধুরী

ক্রীড়া প্রতিবেদক
২৩ নভেম্বর ২০২১ ০৪:৪৩ পিএম | আপডেট: ২৩ নভেম্বর ২০২১ ০৯:৪৬ পিএম
বিসিবির সাবেক সভাপতি সাবের হোসেন চৌধুরী। পুরোনো ছবি
advertisement

পাকিস্তানের বিপক্ষে তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে মাহমুদউল্লাহর করা একটি বল ডেলিভারি নিয়ে তৈরি হয় চরম নাটকীয়তা। ওইদিন পিচে পড়ার পর না খেলে আচমকা সরে দাঁড়ান পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ নাওয়াজ। আর তাতেই বিতর্কের জন্ম দেন তিনি। এতে প্রশ্ন ওঠে, বাংলাদেশের অধিনায়কের ডেলিভারিটি বৈধ ছিল নাকি অবৈধ? মাহমুদউল্লাহ ডেড বল মেনে নিলেও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সাবেক সভাপতি সাবের হোসেন চৌধুরী ডেলিভারিটিকে বৈধ মনে করছেন।

গতকাল সোমবার বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টির শেষ ওভারের খেলা চলছিল তখন। মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে ৩ উইকেট ও ১ ছক্কার ঘটনাবহুল প্রথম ৫ বলের পর ম্যাচের ভাগ্য ছিল সমান সমান। শেষ বলে পাকিস্তানের দরকার ছিল ২ রান। তখন উত্তেজনার পারদ আরও ফুলেফেঁপে ওঠে নাওয়াজের কারণে। বল পিচে পড়ার পর শট না খেলে ছেড়ে দেন তিনি। বল সোজা গিয়ে আঘাত করে স্ট্যাম্পে। তখন আম্পায়ার তানবীর হায়দার ডেড বল ঘোষণা করলে কারণ জানতে চান মাহমুদউল্লাহ। ব্যাখ্যা শুনে সন্তুষ্ট হয়ে ফের বোলিংয়ে যান তিনি।এরপর একবার বোলিংয়ের ভঙ্গি করেও বল ডেলিভারি করেননি মাহমুদউল্লাহ। শেষ পর্যন্ত তিনি যখন ডেলিভারিটি করেন, তখন এক্সট্রা কাভার দিয়ে চার মেরে সমীকরণ মেলান নাওয়াজ। তাতে ঘরের মাটিতে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার তিক্ত স্বাদ নিতে হয় বাংলাদেশকে।

এ বিষয়ে বিসিবির সাবেক সভাপতি ও বর্তমান সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরী টুইটারে মাহমুদউল্লাহর স্পোর্টসম্যানশিপের প্রশংসা করেছন।তিনি জানিয়েছেন, ম্যাচ হারলেও বাংলাদেশ দলের নৈতিক বিজয় হয়েছে, ‘মাহমুদউল্লাহ সম্পূর্ণরূপে বৈধ একটি ডেলিভারি করেছেন এবং অবিশ্বাস্য উদারতা দেখিয়েছেন, যা স্পোর্টসম্যানশিপেরও অনেক ঊর্ধ্বে। আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেননি তিনি। এটা স্মরণীয় হয়ে থাকবে। টি-টোয়েন্টি সিরিজে পাকিস্তান সবগুলো ম্যাচে জিতলেও শেষ ম্যাচে বাংলাদেশের নৈতিক জয় হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন বিসিবির সাবেক এই কর্তা।

 

advertisement
advertisement