advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement

ওয়েবার সনদ না নেওয়ায় বিদেশি জাহাজে জরিমানা

চট্টগ্রাম ব্যুরো
৪ ডিসেম্বর ২০২১ ১২:০০ এএম | আপডেট: ৩ ডিসেম্বর ২০২১ ১১:০১ পিএম
advertisement

বাংলাদেশি পতাকাবাহী জাহাজের স্বার্থরক্ষা আইন প্রয়োগ শুরু করেছে নৌবাণিজ্য অধিদপ্তর। ওয়েবার সনদ ছাড়া পণ্য পরিবহন করায় ‘বিবিসি পেরুকে’ ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। আইন না মেনে পণ্য পরিবহন করায় জরিমানা আরোপ করে নৌবাণিজ্য অধিদপ্তর। অবশ্য এতে দেশি জাহাজের মালিকরা খুশি হলেও উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বিদেশি জাহাজের স্থানীয় এজেন্টদের সংগঠন। জানা গেছে, বাংলাদেশের পতাকাবাহী জাহাজ (স্বার্থরক্ষা) আইন পাস হয় ২০১৯ সালে। আমদানি-রপ্তানি পণ্য পরিবহনে সুবিধা দিতে আইনটি করা হয়েছে। আইনের ধারা ৩-এর উপধারা-৩ অনুযায়ী জাহাজে পণ্য বোঝাইয়ের ১৫ কার্যদিবস আগে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবহিত করতে হবে। তবে প্রক্রিয়াটির শুরু থেকেই আপত্তি জানিয়েছে আসছে স্থানীয় শিপিং এজেন্টরা। তারা উপধারাটি বাতিলের দাবি জানিয়ে বলেছেন, অন্যথায় বাংলাদেশের আমদানি-রপ্তানি পণ্য পরিবহনে জটিলতা তৈরি হবে।

আইন অনুযায়ী আন্তর্জাতিক সমুদ্রপথে পরিবাহিত পণ্যের ৫০ শতাংশ বাংলাদেশি পতাকাবাহী জাহাজে পরিবহন করতে হবে। তবে বাংলাদেশি পতাকাবাহী জাহাজ অথবা সংশ্লিষ্ট বাণিজ্য অংশীদার দেশের পতাকাবাহী জাহাজ না পেলে এবং এই দুই দেশের জাহাজ পাওয়া না গেলে অনুমতি সাপেক্ষে অন্য কোনো দেশের পতাকাবাহী জাহাজে পণ্য পরিবহন করা যাবে। এক্ষেত্রে নির্ধারিত কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে ওয়েভার সনদ নিতে হবে। বর্তমানে নৌবাণিজ্য অধিদপ্তর থেকে এই সনদ নেওয়া বাধ্যতামূলক।

নৌবাণিজ্য অধিদপ্তরের প্রিন্সিপাল অফিসার ক্যাপ্টেন গিয়াস উদ্দিন আহমেদ

আমাদের সময়কে বলেন, বাংলাদেশি পতাকাবাহী জাহাজ ছাড়া সমুদ্রগামী বিদেশি কোনো জাহাজে পণ্য আমদানি-রপ্তানি করতে হলে কমপক্ষে ১৫ দিন আগে ওয়েভার সনদের আবেদন করতে হয়; কিন্তু বিবিসি পেরু জাহাজ না জানিয়েই পণ্য খালাস করে বন্দর ত্যাগ করে। ওয়েবার সনদ ছাড়া পণ্য পরিবহন করায় ৪ নভেম্বর তাদের শোকজ করা হয়েছিল। সন্তোষজনক জবাব দিতে না পারায় ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। আইন অমান্য করে পণ্য পরিবহন করলে আমরা কঠোর ব্যবস্থা নেব।

বাংলাদেশ শিপিং এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের পরিচালক খায়রুল আলম সুজন বলেন, ওয়েবার সনদ নিয়ে আমরা আগে থেকেই আপত্তি জানিয়ে আসছি। ১৫ দিন আগে কোন জাহাজ আসবে সেটি জানানো কোনোভাবেই সম্ভব নয়। এ বিষয়ে শিগগির সংগঠনের পক্ষ থেকে সিদ্ধান্ত আসবে।