advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

রোহিঙ্গা গণহত্যা
আইসিজেতে ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে গণশুনানি

আমাদের সময় ডেস্ক
২১ জানুয়ারি ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২১ জানুয়ারি ২০২২ ১০:৩১ এএম
advertisement

মিয়ানমারে রোহিঙ্গা গণহত্যা মামলায় জাতিসংঘের সর্বোচ্চ আদালত ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিসে (আইসিজে) দেশটির সামরিক জান্তার তোলা আপত্তির ওপর গণশুনানি শুরু হবে ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে। গত বুধবার এক বিজ্ঞপ্তিতে আইসিজে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। খবর রয়টার্স।

আন্তর্জাতিক আদালতের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, নেদারল্যান্ডসের দ্য হেগের পিস প্যালেসে ২১, ২৩, ২৫ ও ২৮ ফেব্রুয়ারি এ শুনানির তারিখ ধার্য করা হয়েছে। করোনা মহামারী পরিস্থিতির কারণে মিশ্র পদ্ধতিতে এ শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। আদালতের কিছু সদস্য গ্রেট হল অব জাস্টিসে উপস্থিত থাকবেন। বাকিরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিচারিক কাজে অংশ নেবেন। এ ছাড়া মামলার দুপক্ষের প্রতিনিধিরা সরাসরি অথবা ভিডিও লিঙ্কের মাধ্যমে শুনানিতে অংশ নিতে পারবেন। এ সংক্রান্ত নির্দেশনা আদালতের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। কূটনৈতিক মহল, গণমাধ্যমকর্মী ও জনসাধারণ আদালতের ওয়েবসাইট ও ইউএন ওয়েব টিভির সরাসরি ওয়েব কাস্টের মাধ্যমে এ শুনানি দেখতে পারবেন।

প্রসঙ্গত, মিয়ানমারের রাখাইনে নির্বিচারে গণহত্যার অভিযোগে পশ্চিম আফ্রিকার দেশ গাম্বিয়ার মামলার বিচারের এখতিয়ার আইসিজের রয়েছে কিনা, তা চ্যালেঞ্জ করেছে মিয়ানমারের সেনা কর্তৃপক্ষ। এবারের গণশুনানি হবে মূলত মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সেই আপত্তির ওপর।

এর আগে ২০২০ সালের জানুয়ারিতে অভিযোগকারী গাম্বিয়া এবং অভিযুক্ত মিয়ানমারকে তাদের আইনি যুক্তি দাখিলের জন্য সময় বেঁধে দিয়েছিল আইসিজে। গাম্বিয়াকে ওই বছরের ২৩ জুলাইয়ের মধ্যে তাদের অভিযোগের বিষয়ে আইনি যুক্তিগুলো উপস্থাপন করতে বলা হয়েছিল। অন্যদিকে অভিযোগের মুখে থাকা মিয়ানমারকে তাদের নির্দোষের পক্ষে যুক্তি উপস্থাপনের জন্য ২০২১ সালের ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়েছিল।