advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement

ব্যাটিং ব্যর্থতায় ভালো বোলিং করেও হারতে হয়েছে : মিরাজ

ক্রীড়া প্রতিবেদক
২১ জানুয়ারি ২০২২ ০৮:৩৬ পিএম | আপডেট: ২১ জানুয়ারি ২০২২ ০৯:৩২ পিএম
মেহেদী হাসান মিরাজ। ছবি : চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স
advertisement

ব্যাটাররা ব্যর্থ হলেও বল হাতে আলো ছড়িয়েছেন চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের স্পিনাররা। ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করেও দলকে জেতাতে পারেননি অধিনায়ক মেহেদী হাসান মিরাজ। ফরচুন বরিশালের কাছে চার উইকেটে হেরেছে তার দল। ভালো বোলিং করলেও ব্যাটারদের রান না পাওয়াকে হারের কারণ মনে করছেন মিরাজ। 

আজ শুক্রবার বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) অষ্টম আসরের উদ্বোধনী ম্যাচের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করে ১২৫ রান তোলে চট্টগ্রাম। এরপর সমালোচনা হয় উইকেটের। অনেকেই ধারণা করে বসেন, মিরপুরের এই উইকেট এবারও সেই চিরাচরিত মন্থর। তবে ব্যাট হাতে ঝড় তুলেছিলেন বেনি হাওয়েল। ২০ বলে খেলেন ৪১ রানের ইনিংস।

ম্যাচটি জিততে পারেনি চট্টগ্রাম। চার উইকেট আর আট বল হাতে রেখেই জয় তুলে নেয় বরিশাল। ম্যাচের হারের পর চট্টগ্রামের অধিনায়ক মেহেদী হাসান মিরাজ কাঠগড়ায় তুললেন ব্যাটসম্যানদের। জানালেন, উইকেট ছিল ব্যাটসম্যানদের জন্য আদর্শ।

সংবাদ সম্মেলনে মিরাজ বললেন, ‘আমাদের ব্যাটসম্যানরা রান করতে পারেননি। এই উইকেটে এতো অল্প রান করে জেতা কঠিন। টি-টোয়েন্টিতে অনেক কঠিন হয়ে যায়। তারপরও আমি মনে করি যে বেনি হাওয়েল অনেক ভালো ব্যাটিং করেছেন শেষের দিকে। ও রান করেছে বলে শেষের দিকে আমরা লড়াই করতে পেরেছি।’

সঙ্গে যোগ করেন মিরাজ, ‘আমাদের রান করতে হবে। টি-টোয়েন্টিতে আপনি বোলারদের যদি বেশি রান দেন তাহলে ওদের জন্য সহজ হয়ে যায়। ১৫০-১৬০ রান হলে ভালো হতো, আমরা ২০-২৫ রান কম করেছি। দেড়শ প্লাস রান হলে সহজ হতো। শুরুর দিকে দ্রুত উইকেট পড়ায় সেটা হয়নি। কিন্তু প্রথম ম্যাচ যেহেতু আমরা সেভাবে বুঝেছি বা দেখলাম কীভাবে কী হয়, বিদেশিরাও মানিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেছেন।’

বিপিএলে নিজেদের প্রথম ম্যাচ হারলেও বিচলিত নন মিরাজ। ভুলত্রুটি শুধরে ঘুরে দাঁড়ানোর বার্তা দিয়ে রাখলেন তিনি। মিরাজের ভাষায়, ‘যেহেতু প্রথম ম্যাচ ছিল, তাই আমাদের ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগ আছে। যে ল্যাকিংসগুলো ছিল সেগুলো আলোচনার মাধ্যমে শুধরে ফেলা সম্ভব। সামনে তো অনেক ম্যাচ আছে, আরও ভালো সুযোগ আছে। সামনের ম্যাচগুলোতে যদি সেগুলো শুধরে ফেলতে পারি তাহলে ভালো করতে পারব।’