advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement

কিংবদন্তি সন্তুরবাদক শিবকুমার শর্মা আর নেই

বিনোদন ডেস্ক
১০ মে ২০২২ ০৩:০৩ পিএম | আপডেট: ১০ মে ২০২২ ০৩:০৬ পিএম
শিবকুমার শর্মা। পুরোনো ছবি
advertisement

কিংবদন্তি সন্তুরবাদক শিবকুমার শর্মা মারা গেছেন। আজ মঙ্গলবার ভারতের মুম্বাইয়ে নিজ বাড়িতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর। শিবকুমার স্ত্রী মনোরমা ও ছেলে রাহুল শর্মাসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, কিংবদন্তি এই সন্তুরবাদকের মৃত্যুতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি থেকে পশ্চিম বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়সহ সবাই শোক প্রকাশ করেছেন।

মোদি লিখেছেন, ‘‌আমাদের সাংস্কৃতিক জগৎ রিক্ত হলো পণ্ডিত শিবকুমার শর্মার প্রয়াণে। সন্তুর যন্ত্রটিকে তিনি বিশ্বের দরবারে বিশেষ মর্যাদায় প্রতিষ্ঠা করেছেন।’

ভারতীয় এই কিংবদন্তি বাংলাদেশি শ্রোতাদের কাছেও পরিচিত মুখ। বেঙ্গল ফাউন্ডেশন আয়োজিত উচ্চাঙ্গ সংগীত উৎসবের সন্তর নিয়ে বেশ কয়েকবার মাতিয়ে গেছেন ঢাকার মঞ্চ।

উত্তর ভারতীয় শাস্ত্রীয় সংগীতে ‘সন্তুর’ নামে বাদ্যযন্ত্রটির আগে তেমন মর্যাদা ছিল না। এটিকে শাস্ত্রীয় সংগীতের মূল ধারায় আনার পুরো কৃতিত্ব এই সংগীত সাধকের। আরেক কিংবদন্তি বাঁশিবাদক হরিপ্রসাদ চৌরাসিয়ার সঙ্গে জুটি বেঁধে শিবকুমার বলিউডের মূল ধারার সিনেমাতে কালজয়ী সুরসৃষ্টি করেছেন। তার মধ্যে অন্যতম ‘সিলসিলা’। ছেলে রাহুল বাবার পদাঙ্ক অনুসরণ করেছেন। সন্তুরবাদক হিসেবে তিনিও প্রতিষ্ঠা পেয়েছেন।

উল্লেখ্য, ১৯৩৮ সালের ১৩ জানুয়ারি ভারতের জম্মুর একটি সম্ভ্রান্ত সংগীত পরিবারে জন্ম শিবকুমারের। তার বাবা উমা দত্তশর্মা ছিলেন প্রথিতযশা সংগীতশিল্পী। এ কারণে খুব অল্প বয়স মাত্র পাঁচ বছর বয়স থেকেই প্রশিক্ষণ নেওয়া শুরু করেন শিব। বাবা উমা সন্তুর নিয়ে অনেক গবেষণা করেন এবং সিদ্ধান্ত নেন যে, ছেলেকে তিনি ভারতীয় শাস্ত্রীয় সংগীতের সন্তুরবাদক হিসেবে গড়ে তুলবেন। সেভাবেই বড় হন শিবকুমার। বাবার দেখানো পথ ধরেই নিজেকে কিংবদন্তির উচ্চতায় নিয়ে যান।