advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বেনাপোলে ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা

৮ বোমা বিস্ফোরণ

বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধি
২৩ জুন ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২২ জুন ২০২২ ১১:২৭ পিএম
advertisement

যশোরের বেনাপোল সীমান্তে আশানুজ্জামান বাবলু (৪০) নামে এক ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ। এ সময় এলাকায় ত্রাস সৃষ্টি করতে সন্ত্রাসীরা ৭-৮টি হাতবোমা বিস্ফোরণ ঘটায়। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টায় বেনাপোল পোর্ট থানার পুটখালী ইউনিয়নের বালু-া বাজারে এ হত্যাকা- ঘটে।

advertisement

আশানুজ্জামান বাবলু শার্শার বাগআচড়া ইউনিয়নের মহিষাকুড়া গ্রামের ৮ নং ওয়ার্ডের সদস্য। এলাকায় বিএনপি নেতা হিসেবে তার পরিচিতি রয়েছে।

এ ঘটনায় নিহতের বাবা রাহাজান মোল্লা হত্যাকা-ে নেতৃত্ব দেওয়া হাকিমকে প্রধান আসামি করে ১৩ জনের নামে বন্দর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

বেনাপোল বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামাল হোসেন ভুইয়া জানান, খবর পেয়ে রাতেই থানাপুলিশ,

র‌্যাব ও গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। আসামিদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে।

নিহতের ভাই বদরুজ্জামান জানান, গত বছরের ইউপি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী হাকিমকে বিপুল ভোটে হারিয়ে জয়লাভ করেন তার ভাই আশানুজ্জামান বাবলু। সেখান থেকে তাদের মধ্যে বিরোধ। পরে রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব বাড়লে নিজ গ্রাম ছেড়ে পার্শ¦বর্তী বালু-ায় থাকতেন তার ভাই। মঙ্গলবার রাতে বালু-া বাজারে বসে দুই ভাই একসঙ্গে চা পান করছিলেন। এ সময় হঠাৎ করেই প্রতিপক্ষ হাকিম ও তার সহযোগী শাহবাজ, লুৎফর, আব্দুলসহ ১০ থেকে ১২ জন তার ভাইয়ের ওপর আকস্মিত ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। এতে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে ঘটনাস্থেই তার মৃত্যু হয়। পরে সন্ত্রাসীরা সাত-আটটি বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়ে এলাকা ত্যাগ করে। এ সময় ভয়ে বাজারের সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যায়।

ওসি আরও জানান, অস্ত্র, মাদকসহ ১২ মামলার আসামি ছিলেন নিহত ইউপি সদস্য আশানুজ্জামান বাবলু। অন্যদিকে খুনিদের নামেও রয়েছে হত্যাসহ একাধিক মামলা।

advertisement