advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বসুন্ধরা কিংসকে রুখে দিল মোহামেডান

ক্রীড়া প্রতিবেদক
৩ জুলাই ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ৩ জুলাই ২০২২ ১২:৩০ এএম
advertisement

চলমান বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগে জ্বলে উঠেছে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। গতকাল আরেকটি দারুণ ম্যাচ উপহার দিল দেশের ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটি। জয়রথে উড়তে থাকা শক্তিধর বসুন্ধরা কিংসের বিপক্ষে ১-১ গোলে ড্র করেছে মোহামেডান। আগের ম্যাচে লিগের বর্তমান রানার্সআপ শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবকে হারিয়ে দিয়েছিল তারা। এবার কিংসের সঙ্গে পয়েন্ট ভাগাভাগি করেছে নতুন কোচ শফিকুল ইসলাম মানিকের দলটি। মোহামেডানের বিপক্ষে ড্র করলেও ১৮ ম্যাচে ৪৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই থাকল বসুন্ধরা। তাদের সমান ম্যাচ খেলে মোহামেডানের অর্জন ২৬ পয়েন্ট। পয়েন্ট টেবিলে তাদের অবস্থান পাঁচ নম্বরে।

এবারের লিগে শফিকুল ইসলাম মানিক কোচের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই বদলে গেছে মোহামেডান। গতকাল কুমিল্লার মাঠে খেলার শুরু থেকেই দারুণ ছন্দে ছিল সাদা-কালো জার্সিধারীরা। ৭ মিনিটে জাফর ইকবালের কর্নারে বল পেয়ে শট নিয়েছিলেন মোহামেডানের তরুণ মিডফিল্ডার শেখ মোরসালিন। কিন্তু বল ক্লিয়ার করেন বসুন্ধরার অভিজ্ঞ গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকো। কিন্তু খেলার ১১ মিনিটে এই মোরসালিনের গোলেই এগিয়ে যায় মোহামেডান (১-০)। ১৬ মিনিটে জাফর ইকবাল বক্সে ঢুকে ডান পায়ে যে শট নেন; তা চলে যায় বারের ওপর দিয়ে। তবে স্কোরিংয়ের কিছুক্ষণ পর থেকেই রক্ষণাত্মক ফুটবল খেলতে থাকে মোহামেডান। যে কারণে তাদের আক্রমণের ধার কমতে থাকে। ১৯ মিনিটে বক্সের বেশ কাছেই ফ্রি কিক পায় বসুন্ধরা। রবসন রবিনহোর স্পট কিক গ্রিপে নেন মোহামেডানের গোলরক্ষক আহসান হাবিব বিপু। ৩৪ মিনিটে বাঁ-প্রান্ত থেকে ইয়াসিন আরাফাতের শট আটকে দেন মোহামেডানের ডিফেন্ডাররা। তবে শেষ রক্ষা হয়নি। ডান প্রান্ত থেকে বসুন্ধরার ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার মিগুয়েল ফিগুয়েরার বাঁ পায়ের দূরপাল্লার শট আশ্রয় নেয় মোহামেডানের জালে (১-১)। ঝাঁপিয়ে পড়েও বলের নাগাল পাননি গোলরক্ষক বিপু। প্রথমার্ধে ১-১ স্কোর লাইন ছিল। দ্বিতীয়ার্ধে দুদলের কেউই গোল পায়নি। ৬৭ মিনিটে নিশ্চিত গোল হজমের হাত থেকে বেঁচে যায় বসুন্ধরা। বল নিয়ে প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে বক্সের মধ্যে ঢুকে বাঁ পায়ে পোস্ট লক্ষ্য করে শট নিয়েছিলেন মোহামেডানের অবি মনেকে। দুই বারের প্রচেষ্টায় বল ক্লিয়ার করে বসুন্ধরাকে বাঁচিয়ে দেন ডিফেন্ডার বিশ্বনাথ ঘোষ। কর্নার পায় মোহামেডান। ইমনের কর্নার বক্সে পেয়ে হেড নেন ইয়াসমিন। কিন্তু তার দুর্বল শটে কোনো পরীক্ষায় পড়তে হয়নি গোলরক্ষক জিকোকে। ৭৬ মিনিটে বক্সের সামান্য বাইরে ফ্রি কিক পায় মোহামেডান। মোরসালিনের স্পট কিক চলে যায় বারের অনেক ওপর দিয়ে। শেষ পর্যন্ত আর গোলের ব্যবধানটা বাড়াতে পারেনি শক্তিধর বসুন্ধরা ও ঐতিহ্যবাহী মোহামেডান ক্লাব। ফলে পয়েন্ট ভাগাভাগি করেই মাঠে ছাড়েন দুদলের খেলোয়াড়রা।

advertisement 3
advertisement