advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

টি-টোয়েন্টির নেতৃত্বেও সাকিব?

ক্রীড়া প্রতিবেদক
৫ আগস্ট ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ৫ আগস্ট ২০২২ ১২:২০ পিএম
সাকিব আল হাসান।
advertisement

টেস্টের পর বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি দলের নেতৃত্বেও পরিবর্তন আসতে চলেছে। সব কিছু ঠিক থাকলে আবারও সাকিব আল হাসানের হাতেই তুলে দেওয়া হবে অধিনায়কত্বের ব্যাজ। জিম্বাবুয়ে সফর শেষেই আনুষ্ঠানিকভাবে নতুন টি-টোয়েন্টি অধিনায়কের নাম ঘোষণা করবে বিসিবি। তবে সাকিবসহ মোট চারজন আছেন বিসিবির ভাবনায়। বর্তমান অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাকিব আল হাসান, লিটন দাস ও নুরুল হাসান সোহানের মধ্যে থেকে একজন অধিনায়ক ও একজন সহঅধিনায়ক বেছে নিতে চায় বোর্ড।

গতকাল পরিচালনা পর্ষদের সভাশেষে বিসিবি সভাপতি যদিও বলেছেন, অধিনায়কত্ব নিয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে সাকিব ও মাহমুদউল্লাহসহ নেতৃত্বের ভাবনায় চারজন আছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘একজন অধিনায়ক হলে আরেকজন তো সহঅধিনায়ক হবে। এখানে কতগুলো ব্যাপার আছে, যাকেই বানাই না কেন, আগে তার সঙ্গে কথা বলতে হবে। কিছু শর্ত ঠিক করে নিতে হবে। এর সবই বাকি আছে। খুব তাড়াতাড়ি আপনারা জানতে পারবেন।’

advertisement

টি-টোয়েন্টিতে মলিন বাংলাদেশ দল। এই ফরম্যাটকে এখনো ঠিকভাবে রপ্ত করতে পারেনি তারা। ১৩১ ম্যাচ খেলে ৪৫ জয়ের বিপরীতে হার ৮৩টি। বর্তমান অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর নেতৃত্বে ৪৩ ম্যাচে জয় ১৬টি; হার ২৬টি। মাহমুদউল্লাহ নিজেও খারাপ সময় পার করছেন। অভিজ্ঞ এই অলরাউন্ডারকে তাই জিম্বাবুয়ে সফরের শুরুতে টি-টোয়েন্টি সিরিজে ‘বিশ্রাম’ দেওয়া হয়েছিল। নতুন অধিনায়ক হিসেবে নুরুল হাসান সোহানকে তিন ম্যাচের সিরিজের জন্য বেছে নিয়েছিল বিসিবি। যদিও দ্বিতীয় ম্যাচে পাওয়া চোটের কারণে সোহান ছিটকে গেলে তার জায়গায় তৃতীয় টি-টোয়েন্টির দলে মাহমুদউল্লাহকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। তবে অধিনায়কত্ব তার হাতে তুলে দেওয়া হয়নি। মোসাদ্দেকের নেতৃত্বে ওই ম্যাচটি খেলেন মাহমুদউল্লাহ। শেষ ম্যাচে ২৭ বলে ২৭ রান করায় বেশ সমালোচিত হয়েছেন তিনি। জিম্বাবুয়ের কাছে শেষ ম্যাচে ১০ রানে হারে বাংলাদেশ। ফলে তিন ম্যাচের সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতে নেয় জিম্বাবুয়ে। মাহমুদউল্লাহর হাতে নেতৃত্বের ঝা-া আর তুলে দেওয়া হচ্ছে না- এটি একপ্রকার নিশ্চিত। আর অধিনায়ক হিসেবে সাকিবই যে প্রথম পছন্দ বিসিবির তা পরিষ্কার। ইতোমধ্যে অধিনায়কত্ব ইস্যুতে সাকিবের সঙ্গে বোর্ডকর্তার কথাও হয়েছে। অধিনায়কত্ব নিতে সাকিব আগ্রহী! জানা গেছে, সহঅধিনায়ক হিসেবে লিটন দাসে আস্থা বিসিবির। তবে অধিনায়ক ও সহঅধিনায়কের নাম জানা যাবে এশিয়া কাপের দল ঘোষণার দিনই। আগামী ২৭ আগস্ট থেকে শুরু এশিয়া কাপ। ২-১ দিনের মধ্যেই নতুন অধিনায়কের নাম জানা যেতে পারে। বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘একসঙ্গে দল (এশিয়া কাপ) ও নেতৃত্ব দুটিই আপনারা জানবেন। ক্রিকেটারদের সঙ্গে কথা বলে জানানো হবে। এর আগে কিছু বলা যাচ্ছে না।’ তবে সাকিবই যে অধিনায়ক হচ্ছেন সে ইঙ্গিত মিলেছে বোর্ড সভাপতির কথাতেই, ‘এখন পর্যন্ত আমরা টেস্ট, ওয়ানডে অধিনায়ক জানি। টি-টোয়েন্টিতে যদি দুই অধিনায়ক বা তিন অধিনায়কের নাম বলে দিই, তা হলে আপনারা সহজেই বুঝে যাবেন সাকিব হচ্ছে কী হচ্ছে না। আমি এখন তো এই জিনিস বলব না (হাসি)।’ প্রসঙ্গত সাকিবের নেতৃত্বে খেলা ২১টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ৭ জয়ের বিপরীতে হার ১৪টি।

এদিকে বেটিং সংস্থা বেট উইনারের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান বেট উইনার নিউজের সঙ্গে সাকিবের আনুষ্ঠানিক চুক্তির বিষয়ে তার বক্তব্য জানতে চাইবে বিসিবি। বিষয়টি সত্যি হলে সাকিবকে নোটিশ পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন নাজমুল হাসান পাপন। তিনি বলেন, ‘এমন চুক্তি হয়েছে কিনা তা সাকিবের কাছে জানতে চাওয়া হবে। বেটিংয়ের সঙ্গে কোনোরকম সংশ্লিষ্টতা থাকলে বোর্ড সেটি গ্রহণ করবে না।’

advertisement