advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

পুকুরের মাছ চোর ধরবে রোবট

নিজস্ব প্রতিবেদক,বগুড়া
৬ আগস্ট ২০২২ ০৮:২৫ পিএম | আপডেট: ৬ আগস্ট ২০২২ ০৮:৩৫ পিএম
বগুড়ায় রোবটিকস অলিম্পিয়াডের উদ্বোধন। ছবি: আমাদের সময়
advertisement

বগুড়ায় প্রথমবারের মতো উদ্বোধন করা হয়েছে রোবটিকস অলিম্পিয়াড। আজ শনিবার সকাল ৯টায় অলিম্পিয়াডের আয়োজন করে জাতীয় কম্পিউটার প্রশিক্ষণ ও গবেষণা একাডেমি (নেকটার)।

এই অলিম্পিয়াডে দেখানো হয় ঢাকার নটর ডেম কলেজের শিক্ষার্থীর তৈরি করা রোবট ‘রেবনি’। রোবটটি আগুন নেভাতে সক্ষম। রেবনি যেখানে যেতে পারবে সেখানে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা যেতে পারবে না। আগুন যত বড় হবে রোবটি তত দ্রুত কাজ করতে পারবে।

advertisement

অন্যদিকে, নাটোরের দিঘাপতিয়া এমকে কলেজের শিক্ষার্থী জিাহাদ রহমান তৈরি করেছেন ফার্মিং রোবট। ফার্মিং রোবট জমিতে যেতে পারবে। ছোট বা বড় গাছে উঠে গাছের ছবি তুলে পাঠাবে। গাছের ফল, ফুল রোগাক্রান্ত কিনা সেটিও জানিয়ে দেবে।

বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজ এবং আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়ন স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থীরা যৌথভাবে তৈরি করেছেন মেডিকেল অ্যাসিসটেন্ট রোবট। রোবটটি পরিচালনার মাধ্যমে রোগীকে বিভিন্নভাবে সেবা ও বার্তা দেবে। 

নেকটার পরিচালক (উপসচিব) শাফিউল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. মহসিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন এটুআই প্রকল্প পরিচালক (যুগ্ম সচিব) ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ুন কবীর এবং বুয়েটের কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগের সাবেক ডিন কম্পিউটার বিজ্ঞানী ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ।

এই অলিম্পিয়াডে একটি রোবট দেখানো হয় যেটি পুকুরে মাছ চাষের জন্য পানির অম্ল ও ক্ষারের আদর্শমাত্রা ঠিক আছে কিনা পরীক্ষা করবে। পানিতে অক্সিজেনের পরিমাণে কোনো হ্রাস-বৃদ্ধি হলো কিনা সেটিও দেখা যাবে। সেই সঙ্গে পুরো পুকুর বা ঘেরজুড়ে খাবার সরবরাহ এবং কোন খাবারের কি পরিমাণ প্রয়োজনীয়তা তাও নির্ধারণ করবে রোবটটি। এতেই শেষ নয়, পুকুরে কোনো শত্রু এসে বিষ প্রয়োগ করলে বা কেউ মাছ চুরি করলে সঙ্গে সঙ্গে তার ছবি চলে যাবে ওই পুকুর বা ঘেরের মালিকের কাছে। এজন্য রোবটের পাশাপাশি পুকুর বা ঘের মালিকের হাতে থাকতে হবে একটি স্মার্টফোন। এমনই সব প্রযুক্তি নির্ভর রোবট প্রদর্শিত হলো বগুড়ায়।

শুধু মাছ চাষে রোবটের ব্যবহার নয়, বরং কৃষির বিভিন্ন ক্ষেত্রেও যে রোবট ব্যবহার করা সম্ভব তাও দেখানো হয়। কিভাবে রোবট কাকতাড়ুয়ার মত পশু-পাখি তাড়িয়ে ফসল রক্ষা করতে পারে, সেই প্রযুক্তি যেমন দেখানো হয়, তেমনি রান্নাঘরে রোবট কিভাবে স্বয়ংক্রিয় রান্না করতে পারে সেই প্রযুক্তিও প্রদর্শিত হয়। এছাড়া রোবটিক সিস্টেম ব্যবহার করে সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাসের উপায় দেখানো হয়।

এসব প্রদর্শনীতে মানুষের আগ্রহ ছিলো ব্যাপক, তার চেয়ে বেশি ভিড় জমেছিল রোবট দিয়ে ফুটবল খেলার আয়োজনে। খেলনা গাড়ির ন্যায় চাকা লাগানো রোবট ব্যবহার করে দুইজন প্রতিযোগী হাতে রিমোট কন্ট্রোল নিয়ে খেলতে শুরু করেন ক্ষুদ্রাকৃতির ফুটবল। একের পর এক প্রতিযোগীরা এতে অংশ নেন। এক একটি ম্যাচে তিন মিনিট করে সময় পান প্রতিযোগীরা। এভাবে দিনভর প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে দর্শনার্থীদের বিমোহিত করেন রোবট চালকরা।

নেকটার চত্বরে আয়োজিত অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট), ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়(রুয়েট), রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি, আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশসহ ৪৯টি প্রতিষ্ঠানের ১০৬টি টিম প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। যেখানে প্রতিযোগী  ছিলেন মোট ৩৩১ জন।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, তথ্য প্রযুক্তির বাধাহীন ব্যবহার ও দ্রুত তথ্য স্থানান্তরের মাধ্যমে গোটা বিশ্বের জীবন প্রবাহের গতি ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। ইন্টারনেট অব থিংকস এবং কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ব্যবহার মানবসম্পদের বিকল্প হিসেবে কাজ করবে। এই ডিজিটাল বিপ্লবের ছোঁয়ায় উৎপাদন ব্যবস্থায় ঘটবে অকল্পনীয় পরিবর্তন। সেখানে উৎপাদনের জন্য মানুষকে যন্ত্র চালাতে হবে না। বরং যন্ত্র স্বয়ংক্রিয়ভাবে কর্ম উৎপাদন করবে এবং কাজ হবে আরও নিখুঁত। চিকিৎসা, যোগাযোগ, প্রকাশনা প্রভৃতি ক্ষেত্রে এর প্রভাব হবে অত্যন্ত জোরালো। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের ফলে বিপুল পরিমাণ জনগোষ্ঠী চাকরি হারালেও এর বিপরীতে তৈরি হবে নতুন নতুন কর্মক্ষেত্র। সে লক্ষ্যে সরকার ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে। তারই অংশ হিসেবে সকলের মাঝে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের গুরুত্ব তুলে ধরতে নেকটার প্রথমবারের মতো রোবটিকস অলিম্পিয়াডের আয়োজন করেছে বলে উল্লেখ করেন তারা।

advertisement