advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

পুনর্দখলের বছরপূর্তি
নারীদের বিক্ষোভে চড়াও তালেবান

যুক্তরাষ্ট্রের সৈন্যদের সরিয়ে ২০২১ সালের ১৫ আগস্ট দ্বিতীয় মেয়াদে দেশ পরিচালনার ভার নিজেদের কাঁধে তুলে নেয় আফগানিস্তানের সশস্ত্র গোষ্ঠী তালেবান। তারা ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকার সময় কঠোর শরিয়াহ আইন অনুসরণ করেছিল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
১৪ আগস্ট ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ১৪ আগস্ট ২০২২ ১২:৪২ এএম
তালেবানের তাড়ায় বিক্ষোভ ভেঙে পালাতে বাধ্য হচ্ছেন গণতন্ত্রকামী নারী আন্দোলনকর্মীরা। গতকাল কাবুলে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ভবনের সামনে এই বিক্ষাভে ৪০ জনের মতো নারী অংশ নেন। তারা ‘রুটি, রুজি ও স্বাধীনতা’ সেøাগান দিচ্ছিলেন। তাদের হাতে থাকা ব্যানারে লেখা ছিল ‘১৫ আগস্ট কালো দিন’ - এএফপি
advertisement

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে নারীদের বিক্ষোভ ছত্রভঙ্গ করে দিয়েছে তালেবান যোদ্ধারা। এ সময় নারীদের মারধর, লাঠিপেটা ও ফাঁকা গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। তালেবানের ক্ষমতায় ফেরার প্রথম বর্ষপূর্তির একদিন আগে শনিবার বিরল এক বিক্ষোভে এ ঘটনা ঘটে। খবর এএফপির।

আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের হস্তক্ষেপে দুই দশকে নারীদের সামান্য যেসব অর্জন, গত বছরের ১৫ আগস্ট ক্ষমতা দখলের পর সেগুলো কেড়ে নিয়েছে তালেবান। শিক্ষা মন্ত্রণালয় ভবনের সামনে এই বিক্ষোভে প্রায় ৪০ নারী অংশ নেন। তাদের ‘রুটি, রুজি ও স্বাধীনতা’ সেøাগান দিতে শোনা যায়।

advertisement

এরপর ফাঁকা গুলি ছুড়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেওয়া হয়। এ সময় নারীরা দৌড়ে পার্শ্ববর্তী দোকানে আশ্রয় নিলে তাদের ধাওয়া করে বন্দুকের বাঁট দিয়ে আঘাত করে তালেবান যোদ্ধারা।

advertisement 4

বিক্ষোভকারীদের বহন করা ব্যানারে লেখা ছিল ‘১৫ আগস্ট কালো দিন’। বিক্ষোভে অংশ নেওয়া নারীরা কাজ করার ও রাজনীতিতে অংশগ্রহণের অধিকারের দাবি জানান। তারা ‘ন্যায়বিচার চাই/অবহেলায় আমরা ক্ষুব্ধ’ প্রভৃতি সেøাগান দেয়। এ সময় অনেক বিক্ষোভকারীই নিকাব পরিহিত ছিলেন না।

কয়েক মাসের মধ্যে নারীদের প্রথম কোনো বিক্ষোভ ছিল এটি। এই কর্মসূচির খবর সংগ্রহ করতে যাওয়া সাংবাদিকদেরও মারধর করে তালেবান যোদ্ধারা। হাজারো কিশোরীর মাধ্যমিক স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে তালেবান সরকার। অনেক সরকারি চাকরিতে নারীদের ফিরতে বাধা দেওয়া হচ্ছে।

দীর্ঘ সফরে নারীদের একা ভ্রমণও নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তারা কেবল পুরুষদের থেকে পৃথক দিনে রাজধানীর বাগান ও পার্কগুলোতে বেড়াতে যেতে পারেন। মে মাসে আফগানিস্তানের সর্বোচ্চ নেতা ও তালেবানপ্রধান হাইবাতুল্লাহ আখুন্দজাদা জনসমাগমস্থলে নারীদের বোরকা পরিধান করে চলাফেরা করার নির্দেশ দেন।

শুরুতে কিছু আফগান নারী এসব বিধিনিষেধের বিরোধিতা করেন এবং ছোটখাটো বিক্ষোভের আয়োজন করেন। কিন্তু কিছুদিনের মধ্যেই তাদের নেত্রীদের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে ফেলে তালেবান। তবে তাদের আটকের বিষয়টি অস্বীকার করা হয়েছে।

advertisement