advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

রুশ এমপিদের যুদ্ধে যোগদানের আহ্বান

অনলাইন ডেস্ক
২২ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০৮:২৭ পিএম | আপডেট: ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০৮:২৭ পিএম
পুতিনের মিত্র রাশিয়ার পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ স্টেট ডুমার স্পিকার ব্যাচেস্লাভ ভোলোদিন
advertisement

চলতি বছরের গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযানের ঘোষণা দেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এরপর আজ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত টানা ২০৯ দিনের মতো চলছে দেশ দুইটির সংঘাত। এতে দুই পক্ষের বহু হতাহতের খবর পাওয়া যাচ্ছে। এতোদিনে রাশিয়া ইউক্রেনে কিয়েভ দখল করে সেখানে পুতুল সরকার বসানোর যে বাসনা করেছিল তা এখন পর্যন্ত অধরা। উল্টো দখলকৃত অনেক অঞ্চল থেকে ইউক্রেনে বাহিনীর পাল্টা আক্রমণের মুখে পিছু হটতে বাধ্য হচ্ছে রুশ বাহিনী। এছাড়া ইউক্রেনে রুশ বাহিনী যে চরম জনবল সংকটে ভুগছে তার চিত্র ক্রমেই স্পষ্ট হয়ে উঠছে।

সম্প্রতি বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধে তাদের কয়েদিদের পাঠানোর জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে। এছাড়া নতুন করে তিন বা ছয় মাসের জন্য রুশ ও বিদেশিদের ইউক্রেনে বিশেষ অভিযানের জন্য চুক্তিতে নিয়োগ দিচ্ছে রাশিয়া। এরমধ্যে গতকাল বুধবার পুতিন ইউক্রেন যুদ্ধের জন্য সেনা সমাবেশের ঘোষণা দিয়েছে। এতে তিন লাখ রিজার্ভ সেনা সমাবেশ হবে। অনেকে বলছেন, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর রাশিয়া প্রথমবারের মতো এ ধরণের পদক্ষেপ নিল।

advertisement 3

এদিকে পুতিনের এমন ঘোষণার পর রাশিয়ার পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ স্টেট ডুমার স্পিকার ব্যাচেস্লাভ ভোলোদিন এমপিদের ইউক্রেন যুদ্ধে যোগদানের আহ্বান জানিয়েছেন।

advertisement 4

আজ বৃহস্পতিবার টেলিগ্রাম পোস্টে ব্যাচেস্লাভ ভোলোদিন বলেন, যারা আংশিক সেনা সমাবেশের জন্য যোগ্য তাদের উচিত বিশেষ সামরিক অভিযানে অংশ নিয়ে সাহায্য করা।

পুতিনের এই মিত্র বলেন, ডেপুটিদের (এমপি) জন্য কোনো সুরক্ষা নেই। ব্যাচেস্লাভ ভোলোদিন এসময় পূর্ব ইউক্রেনের অধিকৃত ডনবাস অঞ্চলে মোতায়েনরত সংসদ সদস্যদের প্রশংসা করেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যাদের যুদ্ধের অভিজ্ঞতা এবং বিশেষ সামরিক প্রশিক্ষণ আছে তারাই আংশিক সেনা সমাবেশের যোগ্য।

advertisement