advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু, স্বামী গ্রেপ্তার  

মিরসরাই প্রতিনিধি
১ নভেম্বর ২০২২ ০৪:০৩ পিএম | আপডেট: ১ নভেম্বর ২০২২ ০৪:০৩ পিএম
সাদিয়া ও তাজুল। ছবি: সংগৃহীত
advertisement

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে সাদিয়া আক্তার (১৯) নামে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার দুপুরে মিরসরাই পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের পূর্ব আমবাড়িয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ওই গৃহবধূ মৃত্যুর অভিযোগে স্বামী তাজুল ইসলাম রুবেলকে আটক করে পুলিশ। সাদিয়া সীতাকুণ্ড উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাজীপাড়া এলাকার আলমগীর মেম্বার বাড়ির মো. খানের মেয়ে।

advertisement

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মিরসরাই পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের পূর্ব গোভনিয়া প্রকাশ আমবাড়িয়া এলাকার সিরাজুল হকের ছেলে তাজুলের সঙ্গে ৪ বছর আগে সাদিয়ার ৭ লাখ টাকা দেনমোহরে বিয়ে হয়। উসুল বাবদ ছিল ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা। তখন মেয়ের ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়ায় বিয়ের কাবিন রেজিস্ট্রি হয়নি। পরবর্তীতে যখন মেয়ের বয়স ১৮ হবে তখন কাবিননামা রেজিস্ট্রি করা হবে বলে সিদ্ধান্ত হয়।  

advertisement 4

সাদিয়ার মামি মর্জিনা আক্তার বলেন, ‘‘গতকাল সকাল ১০টার দিকে সাদিয়া তার মাকে ফোন করে করে বলে, ‘আজকের মধ্যে ৯০ হাজার টাকা না দিলে আমাকে মেরে ফেলবে। তখন তার মা বলেন আমার কাছে তো টাকা নাই অন্যজনের কাছ থেকে টাকা নিয়ে বুধবারের মধ্যে দিয়ে আসবো।’ এরপর দুপুরে দোকানের লোকজন এসে আমাকে বলে আপনার ভাগনি আত্মহত্যা করেছে। তখন আমি গিয়ে দেখি খাটের উপর ফ্যানের সঙ্গে ঝুলানো অবস্থায় একটা মোড়ার উপর এক পায়ের হাঁটু বাঁকা অবস্থায় আছে। আত্মহত্যা করলে মোড়া তো সরে যাওয়ার কথা। সে যদি আত্মহত্যা করে দরজা ভিতর থেকে লাগানো থাকার কথা। আমার ভাগনিকে সিঙ্গারার সঙ্গে কিছু মিশিয়ে দিয়ে মেরে ফেলছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিয়ের ৪ মাস পর স্বামী তাজুল ইসলাম ওমানে চলে যায়। গত ১৫ দিন আগে দেশে ফিরে আসে। আসার পর থেকে সাদিয়াকে টাকার জন্য নির্যাতন করতো। সাদিয়া যেন তার কোনো আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে কথা বলতে না পারে সে জন্য তার মোবাইলে সকলের নম্বার ব্লক করে দিয়েছিল এবং তাকে কোথাও যেতেও দেওয়া হতো না।’

মিরসরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কবির হোসেন জানান, খবর পেয়ে সুরতহাল রিপোর্ট শেষে লাশ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। এটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা ময়নাতদন্তের পর জানা যাবে। এই ঘটনায় স্বামী তাজুল ইসলাম রুবেলকে আটক করে চালান করা হয়েছে। এ ছাড়া আত্মহত্যার প্ররোচনায় পরিবারের পক্ষ থেকে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

advertisement