advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বিশ্বকাপে গরমে ফুটবলারদের হিট স্ট্রোকের শঙ্কা

স্পোর্টস ডেস্ক
১৯ নভেম্বর ২০২২ ০২:২৯ পিএম | আপডেট: ১৯ নভেম্বর ২০২২ ০২:২৯ পিএম
ছবি: সংগৃহীত
advertisement

২৪ ঘণ্টার কিছু বেশি সময় পর মাঠে গড়াতে যাচ্ছে কাতার বিশ্বকাপ। তবে আসরটি নিয়ে বিতর্ক যেন কিছুতেই পিছু ছাড়ছে না। এবার দোহার অতিমাত্রার তাপমাত্রা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা, দোহার গরমে ফুটবলারদের হিট স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

যদিও মধ্যপ্রাচ্যের দেশটির গরম নিয়ে আগে থেকেই আপত্তি জানিয়েছিল ফুটবল বিশ্বের প্রথম সারির দেশগুলি। তাদের আপত্তিকে গুরুত্ব দিয়ে বিশ্বকাপের সময় পরিবর্তন করেছে ফিফা। চিরায়িত জুন-জুলাইয়ের বদলে নভেম্বর-ডিসেম্বরে হচ্ছে বিশ্বকাপ। তবুও কাতারের তাপমাত্রা দলগুলির কপালে চিন্তার ভাঁজ এঁকে দিয়েছে।

advertisement

এই নভেম্বরেও দোহার গড় তাপমাত্রা ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি। সংবাদ মাধ্যম থেকে জানা যায়, এই তাপমাত্রায় অনুশীলন করতে বিশেষ করে সমস্যায় পড়ছেন ইউরোপের ফুটবলাররা। ইতোমধ্যে সূর্যের প্রখর তাপের হাত থেকে বাঁচতে গ্যারেথ বেলের ওয়েলস অনুশীলনের সময় পরিবর্তন করেছে। এছাড়া অনুশীলনের সময়ও কমানো হয়েছে ফুটবলারদের সুস্থ রাখতে।

advertisement 4

এ বছর আবহাওয়াও কিছুটা বিরূপ। বেশ গরম এবং আর্দ্র। আবহবিদরা যাকে অস্বাভাবিক বলছেন। অথচ এ সময় কাতারে আবহাওয়া অন্য সময়ের তূলনায় ভালো হওয়া্র কথা।

এদিকে বিশেষজ্ঞদের মতামত দলগুলির চিন্তা বাড়িয়েছে। ব্রিটেনের পোর্টসমাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শরীরবিদ্যার অধ্যাপক মাইক টিপটন বলেন, ‘এই তাপমাত্রা ফুটবল খেলার জন্য আদর্শ নয়। ৯০ মিনিট দৌড়ে ফুটবল খেলা পরের ব্যাপার, অতিরিক্ত শরীরচর্চাও ক্ষতিকর হতে পারে এই তাপমাত্রায়। শরীরের ক্ষতি হবে। অজ্ঞান হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনাও থাকে। হিট স্ট্রোকও হতে পারে ফুটবলারদের। এই গরমে বেশি অনুশীলন বা শরীরচর্চা না করাই ভাল।’

তিনি আরও বলেন, ‘ম্যানচেস্টার বা লিভারপুলে খেলার অভ্যাস থাকলে খুব বেশি অসুবিধা হওয়ার কথা নয়। কিন্তু দক্ষিণ ইউরোপ বা দক্ষিণ আমেরিকায় যারা খেলেন, তাদের খেলায় কিছু পরিবর্তন আনতে হবে। তাদের পক্ষে এক গতিতে ৯০ মিনিট দৌড়নো সম্ভব নয়। যদিও আটটি স্টেডিয়ামেই শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা রয়েছে। সেটা একটা সুবিধার দিক। ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে ফুটবল খেলার থেকে ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে খেলা ভাল।’

আরও কিছু বিশেষজ্ঞ মনে করছেন, দোহার তাপমাত্রা সমস্যায় ফেলতে পারে বেশ কয়েকটি দেশের ফুটবলারদের। তাই দলগুলিকে যতটা সম্ভব গরম এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়েছেন তারা।

advertisement