advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

এবার ক্রোয়েশিয়াকে রুখে দিল মরক্কো

ক্রীড়া ডেস্ক
২৪ নভেম্বর ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৪ নভেম্বর ২০২২ ০১:০২ এএম
advertisement

দারুণ লড়াই করল মরক্কো। রুখেও দিল গেলবারের রানার্সআপ ক্রোয়েশিয়াকে। কাতারের আল বাইত স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত বুধবার গ্রুপ ‘এফ’-এর ম্যাচে ক্রোয়েশিয়া গোলশূন্য ড্র করেছে মরক্কোর বিপক্ষে।

advertisement

ক্রোয়েশিয়া যে খারাপ খেলছিল তা নয়, মরক্কোর প্রেসিং ফুটবলে তাল রাখা কঠিন হয়ে উঠেছিল মদ্রিচদের। ম্যাচে দুই দলই অবশ্য সুযোগ পেয়েছিল গোল আদায়ের। তবে শেষ পর্যন্ত চেষ্টা করেও কেউ জালের দেখা না পেলে ম্যাচ নিষ্পত্তি হয় গোলশূন্য ড্রয়ে। চলতি বিশ্বকাপে এটি তৃতীয় গোলশূন্য ড্র ম্যাচ।

advertisement 4

প্রথমার্ধে ক্রোয়েশিয়ার আক্রমণগুলো নিচ থেকে তৈরি হয়ে বাঁ প্রান্ত দিয়ে মরক্কোর ডিফেন্স ভাঙার চেষ্টা করছিল। মিডফিল্ডেও ক্রোয়েশিয়ার খেলা বেশ গতিময় ও প্রাণবন্ত ছিল।

মদ্রিচের নেতৃত্বে শুরু থেকেই মাঝমাঠে নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার চেষ্টা ছিল ক্রোয়াটদের। তবে যেখানে বল সেখানে পৌঁছে ক্রোয়েশিয়াকে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিতে দিচ্ছিলেন না মরক্কোর খেলোয়াড়রা। ম্যাচের ১৬ মিনিটে বুটের বাইরের অংশ দিয়ে মদ্রিচের দারুণ এক ক্রসকে গোলে রূপান্তর করার মতো কেউ ছিল না।

পরের মিনিটে অবশ্য সুযোগ এসেছিল ক্রোয়েশিয়ার সামনে। সেলিম আমাল্লাহ বল হারালে ফাঁকা জায়গা পান পেরিসিচ। তবে সে সুযোগ কাজে লাগেনি। এর পর গোলের দারুণ এক সুযোগ পায় মরক্কো। তবে জিয়েশের ক্রসে গোলের সুযোগ হেলায় নষ্ট করেন ইউসেফ এন-নেসরি। আর ক্রোয়েশিয়ার সুবর্ণ সুযোগ এসেছিল প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে। তবে মরক্কোর গোলরক্ষক ইয়াসিন বুনুর নৈপুণ্যে সে যাত্রায় বেঁচে যায় উত্তর আফ্রিকার দেশটি।

দ্বিতীয়ার্ধেও একইভাবে জমে ওঠে ম্যাচ। এই অর্ধের শুরুতে খেলার গতি বাড়ায় ক্রোয়েশিয়া। ৫১ মিনিটে সোফিয়া বুফালের দূরপাল্লার শট ঠেকান দেয়ান লোভরেন। মরক্কো অবশ্য পেনাল্টির আবেদন করে, তবে তাতে রেফারি সাড়া দেননি। একই আক্রমণে কাছের পোস্টে হেড করছিলেন নুসাইর মাজরাউয়ি। তবে তাকে নিরাশ করেন ক্রোয়াট গোলরক্ষক লিভাকোভিচ।

এরপর কর্নার থেকে গোলের সুযোগ পেলেও ইয়াসিনন বুনোনোর দারুণ প্রচেষ্টায় বঞ্চিত থাকতে হয় ক্রোয়েশিয়াকে। পরের মুহূর্তে বর্তমান রানার্সআপদের আরেকটি প্রচেষ্টা ঠেকিয়ে দেন রোমেইন সাইস। এর মাঝে চোট নিয়ে মাঠ ছাড়েন মাজরাউয়ি।

ম্যাচের এ পর্যায়ে মরক্কোর হাই প্রেসিং ফুটবল সামলাতে ফের বেগ পেতে হচ্ছিল ক্রোয়েশিয়াকে। ক্রোয়াটদের চাপে ফেলে কয়েকবার গোলের কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছিল মরক্কো। ৬৪ মিনিটে ফ্রি-কিক থেকে জিয়েশের বুলেট গতির শট কোনোরকমে ফেরান লিভাকোভিচ।

আক্রমণ-প্রতি আক্রমণে দুই দলই চেষ্টা করছিল গোল আদায়ের। তবে হার না মানা ডিফেন্ডিংয়ে প্রতিপক্ষকে এগিয়ে যেতে দিচ্ছিল না কোনো দলই। শেষ পর্যন্ত কেউ কারও ডিফেন্স ভাঙতে না পারলে ড্র মেনেই মাঠ ছাড়ে দুই দল।

advertisement