advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

উজ্জীবিত দক্ষিণ কোরিয়া

ক্রীড়া ডেস্ক
২৪ নভেম্বর ২০২২ ১২:০০ এএম | আপডেট: ২৪ নভেম্বর ২০২২ ০১:০২ এএম
advertisement

গ্রুপ ‘এইচ’-এর ম্যাচে আজ মুখোমুখি হতে যাচ্ছে উরুগুয়ে ও দক্ষিণ কোরিয়া। দুই দলই জয় দিয়ে শুরু করতে চায় এবারের বিশ^কাপ। বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টায় মুখোমুখি হবে এই দুই দল।

advertisement

উরুগুয়ে দুইবারের বিশ^চ্যাম্পিয়ন। এবারের বিশ^কাপে মূলপর্বে জায়গা করে নিতে বেশ কাঠখড় পোহাতে হয়েছে লুইস সুয়ারেজ আর এডিনসন কাভানিদেরকে। শেষ পর্যন্ত ভাগ্যের শিকা ছেঁড়ায় জায়গা করে নিয়েছে। এবারের বিশ^কাপই শেষ হতে যাচ্ছে সুয়ারেজ ও কাভানিদের। তাই এবারের বিশ^কাপে নিজেদের সেরাটাই দিতে চাইবে এ দুজন। সবশেষ ২০১০ বিশ^কাপের সেমিফাইনালে খেলেছিল উরুগুয়ে। কিন্তু সেমিফাইনালে নেদারল্যান্ডসের কাছে হেরে থামতে হয়েছিল তাদেরকে। পরের দুই বিশ^কাপে শেষ ষোলো থেকে বিদায় নিতে হয়েছে তাদের। সেই বিশ^কাপে দারুণ পারফম করে সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার জিতেছিলেন দলটির মিডফিল্ডার ডিয়োগো ফোরলান। ’১৪-এর বিশ^কাপের পর ফোরলান দল থেকে অবসর নেন।

advertisement 4

বাছাই পর্বে একের পর এক ম্যাচে যখন দল ব্যর্থ হচ্ছিল তখন ব্যর্থতার কারণে কোচ অস্কার তাবারেজকে বিদায় নিতে হয় বাছাইপর্বে। নতুন করে দায়িত্ব দেওয়া হয় ডিয়োগো অলানসোকে। তার মূল লক্ষ্য ছিল উরুগুয়েকে বিশ^কাপে কোয়ালিফাই করার।

নতুন কোচ হিসেবে দায়িত্ব নিয়েই দলকে বিশ^কাপের টিকিট পাইয়ে দেন ডিয়োগো অলানসো। অধিনায়ক ডিয়োগো গডিনের ওপর নির্ভর করছে দলটির অনেক কিছু। রক্ষণের দায়িত্বে আছেন তিনি। তা ছাড়া গোলরক্ষক ফার্নান্দো মুসলেরা তো রয়েছেনই।

আজকের ম্যাচে নিশ্চয়ই সুয়ারেজ-কাভানিরা চাইবে তাদের দল জিতুক। সেই মন্ত্রেই উজ্জীবিত হয়ে নিজেদের প্রথম ম্যাচে কোরিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামবে অলানসোর শিষ্যরা।

দক্ষিণ কোরিয়া এশিয়ার পাওয়ার হাউস দল। ১৯৮৬ সাল থেকে সব কটি বিশ^কাপেই অংশ নিচ্ছে। তাদের সেরা সাফল্য ২০০২ সালে বিশ^কাপে সেমিফাইনালে খেলা। সেই ম্যাচে জার্মানির কাছে ১-০ গোলে হেরে ফাইনালে খেলার স্বপ্নভঙ্গ হয়েছিল তাদের। স্থান নির্ধারণী ম্যাচে তুরস্কের কাছে হেরে সেই বিশ^কাপে চতুর্থ হয়ে থাকতে হয়েছিল তাদেরকে।

উরুগুয়ের বিপক্ষে ম্যাচে তারা চ্যালেঞ্জ জানাবে এটাই অনুমেয়। দক্ষিণ কোরিয়া দলের অন্যতম খেলোয়াড় ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে খেলা টটেনহামের প্লে-মেকার হিউং সন মিন। মূলত কোরিয়ানদের আক্রমণ গড়েই ওঠে সনকে দিয়ে। বিশ^কাপ শুরুর আগে ইনজুরিতে পড়েছিলেন এই তারকা। এমনকি ছিটকে যাওয়ারও আশঙ্কা ছিল তার। শেষ পর্যন্ত ইনজুরি সেরে দলে ফিরেছেন সন। যা কিনা দলটির জন্য স্বস্তির বিষয়। তবে কতটুকু ফিট সন সেটি নিয়েও সংশয় আছে। উরুগুয়ে ও দক্ষিণ কোরিয়া এ পর্যন্ত একে অপরকে আটবার মোকাবিলা করেছে। এর মধ্যে ছয়বার জয়ের দেখা পেয়েছে উরুগুয়ে। একবার জিতেছে কোরিয়া। অন্য ম্যাচটি ড্র হয়েছে। তাছাড়া ১৯৯০ বিশ^কাপে দেখা হয়েছিল এই দুই দলের। সেই খেলায় উরুগুয়ে ১-০ গোলে হারিয়েছিল কোরিয়াকে।

advertisement