advertisement
advertisement
advertisement

মিছিল নিয়ে নয়াপল্টনে জড়ো হওয়ার চেষ্টা, আটক ৩

নিজস্ব প্রতিবেদক
৮ ডিসেম্বর ২০২২ ০৪:৪৪ পিএম | আপডেট: ৮ ডিসেম্বর ২০২২ ০৪:৪৪ পিএম
বিএনপির নেতাকর্মীদের এক অংশের ঝটিকা মিছিল। সংগৃহীত ছবি
advertisement

রাজধানীর কাকরাইলের নাইটিঙ্গেল মোড়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের ঝটিকা মিছিল থেকে ৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ। আজ বৃহস্পতিবার দুপুর পৌনে ১২টার দিকে তাদের আটক করা হয়।

জানা যায়, সকাল থেকেই বিএনপির নয়াপল্টন কার্যালয়ের ফটকে তালা ঝুলছে। কার্যালয়ের ভেতরে কাউকে ঢুকতে দিচ্ছে না পুলিশ। কার্যালয়ের মূল ফটকের বাইরে পাহারায় রয়েছে পুলিশ। নয়াপল্টন এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। প্রতিটি গলির মুখে পুলিশ অবস্থান নিয়েছে।কার্যালয়ের আশপাশের এলাকায় যারা বিভিন্ন প্রয়োজনে যাচ্ছেন, তারা পরিচয়পত্র দেখিয়ে ঢুকতে পারছেন। কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ঢুকতে না পেরে দুপুরে বিএনপি নেতাকর্মীদের একটি অংশ মিছিল নিয়ে নয়াপল্টনে জড়ো হওয়ার চেষ্টা করে। তখন পুলিশ ধাওয়া দিলে মিছিলটি ছত্রভঙ্গ হয়ে গেলে নাইটিঙ্গেল মোড় থেকে ৩ জনকে আটক করে পাশের পুলিশ বক্সে নিয়ে যাওয়া হয়।

advertisement

এদিকে, পুলিশের বাধার কারণে বিএনপির কার্যালয়ে যেতে পারেননি দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও। নাইটিঙ্গেল মোড় থেকেই ফিরে গেছেন তিনি।

advertisement 4

এ বিষয়ে পুলিশের যুগ্ম কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার বলেন, ‘গতকাল বুধবারের অভিযানে বিএনপির কার্যালয় থেকে বিপুল বোমা উদ্ধার করা হয়েছে। নিরাপত্তার কারণে আমরা কাউকে কার্যালয়ে ঢুকতে দিচ্ছি না। পুরো কার্যালয়ে পুলিশের ক্রাইম সিন ইউনিট আছে। তারা জায়গাটি ঘিরে রেখেছে। নিরাপদ ঘোষণা করলে কার্যালয়ে ঢোকার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হবে।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির কার্যালয়ের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা একজন বলেন, ‘রাতে পুলিশের অভিযান শেষে কার্যালয়ের ফটকে তালা দেওয়া হয়েছে।’

গতকাল বুধবার বিকেল ৩টার দিকে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ শুরু হয়। বিকেল ৪টা পর্যন্ত সেখানে থেমে থেমে সংঘর্ষ চলে। নয়াপল্টনে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত একজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় বেশ কয়েকজন গুলিবিদ্ধ ও আহত হয়েছেন।

এ ঘটনায় নয়াপল্টন থেকে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমান উল্লাহ আমান, চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাসসহ অনেক নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

হামলা-গ্রেপ্তারের খবর পেয়ে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে যান বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সেখানে পুলিশ ও সাংবাদিকেরা তাকে ঘিরে ধরেন। নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে তাকে কার্যালয়ের ভেতরে প্রবেশ করতে দেয়নি পুলিশ। পরে সেখানেই বসে পড়েন তিনি।

advertisement